বুথে ভোটার না হলেও হওয়া যাবে পোলিং এজেন্ট, নির্বাচন কমিশনের নয়া নিয়মে স্বস্তিতে বিরোধীরা

0

কলকাতা: আসন্ন নির্বাচনে এবার অনেক বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে।তবে এবার পোলিং এজেন্ট নিয়োগে কিছুটা নিয়ম শিথিল করলো কমিশন। বলা হয়েছে যে কোনো বিধানসভা কেন্দ্রের যে কোনো ভোটদাতা শর্ত সাপেক্ষে যে কোনো কেন্দ্রের প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট হতে পারবেন। এর আগে অবশ্য পোলিং এজেন্ট হওয়ার নিয়ম ছিল, যিনি পোলিং এজেন্ট হিসাবে বুথে থাকবেন তাকে সেই বুথের অথবা পার্শ্ববর্তী বুথের ভোটদাতা হতে হবে।

 সেই নিয়মে বদল আনলো কমিশন। কমিশনের এই নতুন নিয়ম কে স্বাগত জানিয়েছে বিরোধীরাও। এর ফলে কোনো জায়গায় যদি সাংগঠনিক দুর্বলতা থাকে তবে সেই সব বুথে এবার এজেন্ট দিতে আর কোনও অসুবিধায় পড়তে হবে না বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলিকে। এমন টাই জানিয়েছেন বিরোধী দলগুলি। প্রত্যেক নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারী সব রাজনৈতিক দলের একজন প্রতিনিধি পোলিং এজেন্ট থাকেন এবং তাঁর রিলিভার হিসাবে আরও দু’জনকে থাকতো। এবার নির্বাচনের বুথ সংখ্যা এক ধাক্কায় অনেকটা বেড়ে যাওয়ায় এই নিয়ম শিথিল করেছে কমিশন পক্ষে। একটি নির্দেশিকার মাধ্যমে কমিশন জানিয়েছে, সংশ্লিষ্ট ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে উপযুক্ত পোলিং এজেন্ট যদি না পাওয়া যায় তবে সেই সব বিধানসভা কেন্দ্রের যে কোনও ভোটদাতাকেই রাজনৈতিক দলগুলি প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট হিসাবে নিয়োগ করা যাবে।

পোলিং এজেন্ট নিয়োগের এই নিয়ম কে শিথিল করার ফলে রাজনৈতিক দল গুলির সুবিধা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষত বিরোধী দলগুলির সুবিধা হবে কারণ বিগত নির্বাচন গুলিতে বিরোধীদের সাংগঠনিক দুর্বলতা বা রাজনৈতিক সন্ত্রাসের ভয় সঠিক ভাবে পোলিং এজেন্ট নিয়োগ করতে পারেনি অনেক বুথে বিরোধী দল গুলি।ভোট কেন্দ্রে এজেন্ট না থাকলে দলের ভোটারদের আত্মবিশ্বাসের অভাব ঘটে ফলে সুযোগ পায় বিরোধীরা। এবার নির্বাচন কমিশনের এই নয়া নিয়মের ফলে আর কোনো কেন্দ্রের বুথেই এজেন্ট বসাতে বাধা থাকবে না এছাড়াও কোথাও সাংগঠনিক দুর্বলতা থাকলেও অন্য কেন্দ্র থেকে এজেন্ট এনে বুথে বসানো সম্ভব হবে এমনটাই মনে করছেন দলগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here