নির্বাচনের উত্তাপের জের: নয়া নিয়ম লাগু ট্যুইটারে

0

কলকাতা: আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের (Assembly Election 2021) আগে ভোটের তপ্ত হাওয়া লেগেছে ট্যুইটারে (Twitter)। মাইক্রোব্লগিং প্ল্যাটফর্মের তরফে এদিন জানানো হয়েছে, “নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে তাদের নীতিকে আধুনিক রূপ দেওয়া হল। ‘গণতান্ত্রিক আলোচনা, অর্থপূর্ণ রাজনৈতিক বিতর্ক এবং নাগরিক অংশগ্রহণ’ ইত্যাদিকে আরও শক্তিশালী করতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।”

কিছুদিন আগেই একটি নতুন ফিচার নিয়ে হাজির হয়েছিল এই সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মটি। অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য নিজেদের অডিও চ্যাটরুম ‘স্পেসেস’-এর দরজা খুলে দিয়েছিল ট্যুইটার। কোম্পানি আগেই জানিয়েছিল যে, ‘খুব ছোট একটি দল’ দিয়ে তারা এই ফিচারটি শুরু করছে। তবে ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবরের জেরে  বুধবার একটি বিবৃতিতে ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ‘অসম, কেরল, তামিলনাড়ু, পশ্চিমবঙ্গ এবং পুদুচেরিতে কয়েকদিন পরেই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে আমরা টুইটারের নীতিতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বদল আসছে।” পাশাপাশি আরও জানানো হয়েছে, “ট্যুইটারের অপব্যবহার রুখতে একটি আন্তর্জাতিক ক্রস-ফাংশনাল দল গঠন করা হয়েছে। ট্যুইটারের মাধ্যমে যাতে কেউ হিংসায় প্ররোচনা না দিতে পারে বা অফলাইনে কারও ক্ষতি না হয়, তার উপরও নজর রাখবে এই বিশেষ টিম।”

এছাড়াও একই সঙ্গে ভুয়ো বা ম্যানিপুলেটেড খবর, ভোট দেওয়ার প্রক্রিয়া নিয়ে ভুল তথ্য, ভোট দেওয়া থেকে লোককে আটকানোর লক্ষ্যে হুমকি দেওয়া এবং ক্ষতিকারক তথ্য যাতে সহজে ছড়ানো না যায়, সে দিকেও কড়া নজর রাখা হবে। এছাড়াও ট্যুইট, রিট্যুইট, লাইক, মেনশন, ট্যুইটার পোল ইত্যাদি বেচাকেনার প্রমাণ পাওয়া গেলেও সেই অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করা হবে। দরকারে অ্যাকাউন্টটিকে চিরতরে সাসপেন্ডও করা হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here