নির্বাচনের দ্বিতীয় পর্ব থেকে আত্মরক্ষার প্রয়োজনে গুলি চালাতে পারবে কেন্দ্রীয় বাহিনী ! নজিরবিহীন নির্দেশ কমিশনের

0

কলকাতা: রাজ্যে প্রথম দফার ভোট সম্পূর্ণ হয়েছে, আগামী বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফা ভোট শুরু হতে চলেছে। কিন্তু দ্বিতীয় দফায় ভোট করার আগেই সিদ্ধান্ত নিলেন নির্বাচন কমিশন। সূত্রের খবর,‌ কোনওভাবেই বরদাস্ত করা যাবে না কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর হামলা। নির্বাচন কমিশনার সিদ্ধান্তে বলা হয়েছে আত্মরক্ষার প্রয়োজনে গুলি চালাতে পারেন বাহিনী।

রাজ্যে বিধানসভা ভোট প্রথম পর্বে অর্থাৎ ২৭ মার্চের আগের দিন পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুরের ওসি সহ বোমার আঘাতে জখম হন কেন্দ্রীয় বাহিনী এক জাওয়ান। সেই ঘটনার পর থেকে নির্বাচন কমিশন এই কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কোন রকমের ঝামেলা অশান্তি সহ্য করবে না কেন্দ্র বাহিনী। কেন্দ্রীয় বাহিনীর ওপর হামলা হলেই প্রয়োজনে আত্মরক্ষার স্বার্থে গুলি চালানোর নির্দেশ নির্বাচন কমিশনের। সামনেই দ্বিতীয় দফা ভোট ১ মে বৃহস্পতিবার এই দফায় সবথেকে নজরকাড়া কেন্দ্র পূর্ব মেদিনীপুর নন্দীগ্রাম। এ এলাকাটাকে হাই ভোল্টেজ বিধানসভা নির্বাচন কেন্দ্র বলা যেতেই পারে তার সন্দেহ নেই। এখানে শুভেন্দু অধিকারী তার প্রতিদ্বন্দ্বী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লড়ছেন। তবে এই হাইপ্রোফাইল কেন্দ্রে ৩৪১ টি বুথে রয়েছে যার নিরাপত্তায় থাকছে ২১ কোম্পানির কেন্দ্রীয় বাহিনী। এই কেন্দ্রগুলি কে সবথেকে বেশি নিরাপত্তা বলয়ে রাখা হয়েছে। এর পাশাপাশি নির্বাচন কমিশন পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে রাজ্য পুলিশ কেন্দ্র বাহিনি সমন্বয়ে বিশেষ নজরদারি চলছে।

দ্বিতীয় দফার ভোটে ৪ টি জেলায় নির্বাচন হবে যেখানে মোট ৩০টি আসনের জন্য ভোটগ্রহণ করানো হবে। সেখানে সুরক্ষার জন্য কেন্দ্র বাহিনী ৬৫১ কোম্পানি থাকছে মোতায়েনে। এর পাশাপাশি বাঁকুড়ায় ১৭০, পশ্চিম মেদিনীপুর ২১০, পূর্ব মেদিনীপুর ১৯৯, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ৭২ কেন্দ্র বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, রাজ্য পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর মধ্যে সমন্বয় আরও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here