তৃণমূল টাকা দিয়ে ক্লাবে গুন্ডা পুষছে, , কমিশনে অভিযোগের পর টাক্ষের শিকার বেহালার তারকা বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী 

0

কলকাতা: পশ্চিম বেহালার ক্লাব গুলি তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের আখড়া এই অভিযোগে নির্বাচন কমিশনের কাছে চিঠি তারকা বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের । রাজনৈতিক ভাবে এই চিঠির বিরোধীতা করেছে স্থানীয় তৃণমূল সহ তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে একাধিক ক্লাব। গত ২ রা এপ্রিল কমিশনের কাছে চিঠি দেন শ্রাবন্তী তাতে তাঁর অভিযোগ “স্থানীয় ক্লাবগুলি সক্রিয়ভাবে এলাকায় সন্ত্রাসের পরিস্থিতি তৈরি করছে। এ ক্ষেত্রে তৃণমূলের পক্ষ থেকে নিয়মিত আর্থিক সাহায্য দেওয়া হচ্ছে। স্থানীয় ক্লাবগুলিতেই দুর্বৃত্তদের আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে, যাতে তারা নির্বাচনের সময় গোলমাল পাকাতে পারে।”

এই চিঠির ঘটনার স্থানীয় রাজনৈতিক মহল সহ ক্লাব কর্তারাও অত্যন্ত ক্রুদ্ধ।তবে কোনো ক্লাব কর্তারাই সরাসরি এবিষয় মন্তব্য করে রাজনৈতক গোলযোগে জড়াননি। কারণ বেহালার ক্লাবগুলি বহু পুরনো। সেখানে তাদের সদস্যদের মধ্যেও রয়েছে নানা রাজনৈতিক মতবাদের মানুষ। এরমধ্যে সব চেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল বেহালার পুজো কমিটিগুলো। শহরের পুজোয় যাদের অবদান সিংহভাগ। সেই সকল ক্লাবগুলির বিরুদ্ধে এই ধরনের অভিযোগ করার অর্থ তাদের মর্যাদায় ধাক্কা দেওয়া যার প্রভাব পড়েছে স্থানীয় সংস্কৃতির উপর।বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী নিজেকে প্রচারে গিয়ে বারবার নিজেকে বেহালার ‘ভূমিকন্যা’ বলে দাবি করেছেন। কিন্তু তার এই অভিযোগের ফল, নিজেই নিজের ক্ষতি করলেন বলে মত অভিজ্ঞমহলের। শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের এই অভিযোগের সরাসরি জবাব দিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মুখ্য নির্বাচনী এজেন্ট অঞ্জন দাস বলেছেন, “অত্যন্ত দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য।”

তাঁর কথায়, “বেহালার ক্লাবগুলো সমাজবিরোধীদের আখড়া, এর থেকে বড় মিথ্যা আর কিছু হতে পারে না। যাঁরা এই ধরনের কথা বলছেন, তাঁরা বেহালাকে ভাল করে চেনেন না। কারণ, বাম আমলে বেহালায় মস্তানদের জব্দ করতে এখানকার ক্লাবগুলোই এগিয়ে এসেছিল।” তিনি বলেন, “তৃণমূল দল দেখে কোনও ক্লাবকে অর্থ দেয়নি। সরকার যে সমস্ত ক্লাবকে টাকা দিয়েছে, তাদের রং দেখেনি। বিজেপি প্রার্থী যা বলেছেন, তাতে বেহালার মানুষকেই অসম্মান করা হয়েছে। এই ক্লাবগুলোর সঙ্গে বেহালার মানুষের আবেগ জড়িয়ে।” এ প্রসঙ্গেই অঞ্জনবাবু আরও বলেন, “আসলে আগে থেকেই হারের কারণ সাজিয়ে রাখছেন বিজেপি প্রার্থী। রাজনৈতিকভাবে এর মোকাবিলা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here