শাসকদলের ১৪ বিধায়ক গেরুয়া শিবিরে যোগ দিচ্ছেন: দাবি বিজেপি নেতার

0

নয়াদিল্লি: রাজ্যের শাসকদলে ভাঙন ধরাতে বড়সড় উদ্যোগ নিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)৷ এক এক করে মন্ত্রী বিধায়ককে ছলে-বলে-কৌশলে গেরুয়া শিবিরের শক্তি বৃদ্ধি করা হচ্ছে৷ বিধানসভা ভোটের আগে শাসকদলের ১৪জন বিধায়ক গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে চান বলে দাবি করলেন বিজেপি নেতা তথা সাংসদ বিজয় গোয়েল৷ সোমবার তাঁর এই মন্তব্যে রাজ্য রাজনীতিতে রীতিমতো হইচই পড়ে গিয়েছে৷

দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের মুখে রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে বাকযুদ্ধ শুরু হয়েছে। তারই মধ্যে সোমবর ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাংসদ বিজয় গোয়েল দাবি করেছেন যে, আম আদমি পার্টির ১৪ জন বিধায়ক তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করছেন৷ তাঁরা সবাই ভোটের আগেই বিজেপিতে যোগ দিতে চান। বিজয় গোয়েল অন্যান্য অনেক ইস্যু নিয়ে আম আদমি পার্টিকে টার্গেট করেন এদিন৷

বিজেপি নেতা তথা সাংসদ বিজয় গোয়েল

আপ নেতা সঞ্জয় সিংহ এবং দিলীপ পান্ডে দলীয় কর্মীদের নিয়ে বিজয় গোয়ের বাড়িতে একটি বিক্ষোভ সমাবেশ করেন৷ বিজয় গোয়েলও তার পালটা জবাব দিয়েছিলেন। বিজয় গোয়েল বলেন যে, বিজেপি বিধায়করা যখন বিধানসভায় প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করেন, তখন আপ বিধায়করা তাদের কথা বলতে দেন না। আমার প্রশ্নটি কেজরিওয়ালের কাছে যে দিল্লির জনগণের সঙ্গে দূষণ, অননুমোদিত কলোনি, নতুন স্কুল-কলেজসহ যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল তার কী হয়েছিল?

বিজয় গোয়েল আরও বলেন, “সঞ্জয় সিংহ ও দিলীপ পান্ডে যখন তারা বাড়ির বাইরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছিলেন, তখন সদর বাজারে জলের বিল ফেরত পাওয়ার জন্য আমি আপ সরকারের বিরুদ্ধে স্বাক্ষর প্রচার চালিয়ে যাচ্ছিলাম।” বিজয় গোয়েল বলেছিলেন যে, সঞ্জয় সিং আমাকে জিজ্ঞাসা করছেন। প্রশ্ন হচ্ছে, সরকারে কে এবং বিরোধী দলের মধ্যে কে?

বিজয় গোয়েল বলেন, অরবিন্দ কেজরিওয়াল আপ নেতা মণীশ সিসোদিয়াকে বেশি গুরুত্ব দেন। সে কারণেই সঞ্জয় সিং আমার মাধ্যমে, আমার বাড়ির সামনে দল ও কেজরিওয়ালের সামনে তার গুরুত্ব বাড়াতে প্রতিবাদ করছেন। আমিও রাজ্যসভার সাংসদ এবং তিনিও। কেজরিওয়াল যদি নির্বাচনের চার মাস আগে ফ্রি স্কিম ঘোষণা করে থাকেন, তবে গত চার বছরে তিনি কী করেছেন তাও তাকে জানানো উচিত।