শীতলকুচি কাণ্ডে আহতদের সঙ্গে দেখা করে কি বলবেন মমতা ?

0

কলকাতাঃ চতুর্থ দফার ভোটে শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলি চালানোর ঘটনা শোরগোল ফেলে দিয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। শীতলকুচি কাণ্ডে আহতদের সঙ্গে দেখা করতে বুধবার মাথাভাঙা হাসপাতালে যাবেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কথা বলবেন গুলিকাণ্ডে আহতদের সঙ্গে।

গত শনিবার ১০ এপ্রিল চতুর্থ দফার ভোটে রক্তাক্ত হয় কোচবিহারের শীতলকুচি। জোরপাটকিতে বুথের বাইরে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চারজনের মৃত্যু হয়। গুলিবিদ্ধ হন আরও বেশ কয়েকজন। যদিও আত্মরক্ষার্থেই সেদিন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের গুলি চালাতে হয়েছিল বলে দাবি কমিশনের। শীতলকুচির এই ঘটনার পরের দিনই সেখানে যেতে চেয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তা আর হয়ে ওঠেনি।

অশান্তির আশঙ্কা করেই ৭২ ঘণ্টা শীতলকুচিতে রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ বলে জানায় কমিশন। নির্বাচন কমিশনের নিষেধ থাকায় এতদিন শীতলকুচিতে যেতে পারেনননি তৃণমূলনেত্রী। তবে ফোনে কথা বলেছেন মৃত ও আহতদের পরিবারের সঙ্গে। তাঁদের পাশে থাকার আশ্বাসও দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী। দলের তরফে যাতে মৃত ও আহতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য দেওয়া যায় সেব্যাপারেও ভাবনা-চিন্তা চলছে বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে, শীতলকুচির ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়েছে নির্বাচন কমিশনও। রাজ্য পুলিশের সঙ্গে সমন্বয় রেখে কাজ করতে হবে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের, এমনই জানিয়েছেন বিশেষ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে। কেন্দ্রীয় বাহিনীর কর্তাদেরও এব্যাপারে স্পষ্ট নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে কমিশনের তরফে। আগামী চার দফার ভোটে অশান্তি রুখতে রাজ্যে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী আনা হয়েছে। তবে এবারও অশান্তি এড়িয়ে বাংলায় নির্বাচন পরিচালনা কি আদৌ সম্ভব? গত চার দফার বঙ্গ ভোটের অভিজ্ঞতা আশঙ্কা বাড়াচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here