দুই অর্ধে ভিন্ন ধারার ফুটবল খেলে কোনওরকমে জয় পেল তারকাখচিত মহামেডান স্পোর্টিং

1

মহামেডান স্পোর্টিং – ১ (মুনমুন লুগুন)

গারওয়াল এফসি – ০

কল্যাণী : এবারের আইলিগ দ্বিতীয় ডিভিশনের মূলপর্বের জন্য সবথেকে ফেভারিট দল হিসেবে সকলেরই বাজি ছিল মহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের প্রতি। কিন্তু আজকের ম্যাচে সেই উচ্চাকাঙ্খী প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারেনি মহামেডানের ফুটবলাররা। ম্যাচের একেবারে শেষ মিনিটে মুনমুন লুগুনের গোলে কোনওরকমে গারওয়াল এফসির বিরুদ্ধে মানরক্ষা করে সাদা-কালো ব্রিগেড।

ম্যাচের শুরু থেকে শেষ অবধি ম্যাচের রাশ ছিল মহামেডান স্পোর্টিংয়ের হাতে। কিন্তু প্রথমার্ধে দুই দলের তরফ থেকে খেলা ফুটবল যথেষ্টই নিম্নমানের ছিল। একদিকে গারওয়াল এফসি ছিল আল্ট্রা ডিফেন্সিভ, অন্যদিকে মহামেডান স্পোর্টিং বারবার মাঝমাঠ থেকে বল হারাচ্ছিল। টিভির দর্শক থেকে শুরু করে ফেসবুক লাইভে দেখা দর্শকরা কমেন্ট বক্সে নিজেদের বিরক্তি প্রকাশ করছিলেন।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে মহামেডানের খারাপ খেলা পরিবর্তিত হয় কোচ ইয়ান ল এর বুদ্ধিতে। ৩৫ মিনিটে সাইয়াম শর্মার জায়গায় মইনুদ্দিন খান এবং হাফ টাইমের বিরতিতে ভানলালবিয়া ছাংতের জায়গায় শেখ ফৈয়াজ আসায় সাদা-কালো ব্রিগেডের খেলার গতি অনেকটাই বেড়ে যায়। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে তিনটি বড় সুযোগ হাতছাড়া করে মহামেডান। ৬৫ মিনিটে পেনাল্টি পায় মহামেডান, কিন্তু সেই পেনাল্টি গোলপোস্টে মারেন ক্যারিবিয়ান তারকা স্ট্রাইকার উইলিস প্লাজা। এরপর ৭২ মিনিটে ফৈয়াজের ক্রসে আবারও পোস্টে হেড মারেন প্লাজা। ৭৭ মিনিটে মইনুদ্দিনের ক্রসে ফাঁকা গোল পেয়েও হেড রাখতে ব্যর্থ হন ফৈয়াজ।

অন্যদিকে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে গারওয়াল এফসির খেলোয়াড়রা বেশ কয়েকবার বিব্রত করেন মহামেডানের ডিফেন্ডারদের। যখন মনে হচ্ছিল, পয়েন্ট খোয়াতে চলেছে মহামেডান স্পোর্টিং, তখনই তাদের আশা বাড়িয়ে দিলেন উইং ব্যাক মুনমুন লুগুন। দুরপাল্লার দুরন্ত শটে তিনি পরাস্ত করেন গারওয়ালের গোলকিপার সুজিথ সাধুকে।

তবে এই ম্যাচে অবশ্যই নজর কেড়েছেন মহামেডানের অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার মইনুদ্দিন খান এবং বিদেশী ডিফেন্ডার কিংসলে। একদিকে ফরোয়ার্ডে ভালো বল বাড়ানোর পাশাপাশি ডিফেন্সে অনেকটাই লোড নিয়েছেন মইনুদ্দিন, অন্যদিকে একেবারে অধিনায়কের মত সাদা-কালো দেওয়ালের পাহারা দিয়েছেন কিংসলে।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here