হারাচ্ছে ঐতিহ্য? উৎসবের মধ্যেও ইস্টবেঙ্গলকে আক্রমণ করে অশালীন আচরণ মোহনবাগানীদের

0

কলকাতা: করোনার প্রকোপের মাঝেও সেই মাহেন্দ্রক্ষণের স্বাক্ষী হল মোহনবাগান সমর্থকরা। রবিবার বাইপাস লাগোয়া হায়াত রিজেন্সিতে বহু অপেক্ষার সেই আইলিগ ট্রফি হাতে পেলেন মোহনবাগানের কর্তারা। আইলিগের সিইও সুনন্দ ধর এবং ক্রীড়ামন্ত্রী অরুপ বিশ্বাসের উপস্থিতিতে আইলিগের ট্রফি নিয়ে সেলিব্রেশনে মেতে থাকেন মোহনবাগান ক্লাবের এক্সেকিউটিভ মেম্বাররা। আর সেই কারণেই রবিবার সকালে মোহনবাগানের আইলিগ জয়ের উৎসবে ভেসেছিল গোটা তিলোত্তমা।

করোনার আবহের মাঝেও থেমে থাকল না উৎসব। আর হায়াতের বাইরে অপেক্ষায় ছিল অজস্র মোহন জনতা। ট্রফি নিয়ে গোটা কলকাতা রেলায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য তৈরি ছিল মোহনবাগান সমর্থকরা।সবুজ-মেরুন পতাকা নিয়ে শোভাযাত্রা এগিয়ে চলেছে। কিন্তু উৎসবের এই পরিবেশের মধ্যেও যেন বিদ্বেষ ছড়ালেন কয়েকজন মোহনবাগান সমর্থকরা। কলকাতা ফুটবলের ঐতিহ্যের দুই ক্লাবের মধ্যে যেন হারাতে বসেছে একে-অপরকে সম্মানের বিষয়টি। প্রতিদ্বন্দ্বীতা ছাড়িয়ে গিয়ে অশালীনতার পর্যায়ে চলে গিয়েছে।

সেই ভিডিও:

অজয় হাজরা द्वारा इस दिन पोस्ट की गई रविवार, 18 अक्तूबर 2020

সেই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। কয়েকজন মোহনবাগান সমর্থক ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সামনে এসে অশালীন আচরণ করতে থাকেন। অশ্রাব্য ভাষায় চলে গালিগালাজ। যেই ভিডিও নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছেন লাল-হলুদ সমর্থকরা। শুধু সমর্থকরাই নন, ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের অন্যতম শীর্ষকর্তা শান্তিরঞ্জন দাশগুপ্তও এই ঘটনা নিয়ে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, “বর্তমান সমাজের অবক্ষয়কেই আসলে ফুটিয়ে তুলেছে এই ঘটনা। সোশ্যাল মিডিয়ায় আগমনের পরে একে অন্যকে হেয় করার যে ট্রেন্ড চলছে, এটা তারই একটা অংশ। এটা মোহনবাগানের সংস্কৃতি নয়।”