এসসি ইস্টবেঙ্গলের বোর্ড অফ ডিরেক্টরসে কেন থাকবেন না সৈকত গঙ্গোপাধ্যায়? জেনে নিন আসল কারণ

0

কলকাতা : ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের নয়া লগ্নিকারী হিসেবে শ্রী সিমেন্টের আগমণের পর থেকে এক নতুন যুগের শুরু হয়েছে শতাব্দীপ্রাচীন এই ক্লাবের। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, নতুন কোম্পানির বোর্ড অফ ডিরেক্টরসে ক্লাবের পক্ষ থেকে কোন দুজন প্রতিনিধি থাকবেন।

শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গল ফাউন্ডেশনের নতুন ১০ সদস্যের বোর্ড অফ ডিরেক্টরসে লগ্নিকারি সংস্থার তরফে আটজন এবং ক্লাবের পক্ষ থেকে দুজন প্রতিনিধি থাকার কথা রয়েছে। আর সেই মত কথা ছিল, ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের তরফ থেকে বোর্ড অফ ডিরেক্টরসে থাকার কথা ছিল ক্লাবকর্তা সৈকত গঙ্গোপাধ্যায়ের।

কিন্তু ক্লাব সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, বোর্ড অফ ডিরেক্টরসে থাকতে অনিচ্ছুক এই তরুণ ক্লাবকর্তা। এর কারণ হিসেবে একাধিক বিষয় উঠে এলেও ক্লাব সূত্রে জানা গিয়েছে, এখনও ক্লাবকর্তা ও ইনভেস্টরদের মধ্যে কিছুটা চাপানউতোর রয়েই গিয়েছে। মূলত আইনগত ও ক্লাবের সংবিধান নিয়েই কিছুটা মতের অমিল রয়েছে। যার জেরে এই ঝামেলার মধ্যে থাকতে চান না সৈকতবাবু। তবে সৈকত গঙ্গোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ট মহল থেকে জানা গিয়েছে, ব্যক্তিগত ও পেশাগত কারণে বোর্ডে থাকতে চাইছেন না তিনি।

ক্লাবে ইনভেস্টর আনার ক্ষেত্রে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকারের জয়ধ্বনি করা হলেও আদতে, গোটা অপারেশনটাই পর্দার পিছন থেকে সামলেছিলেন সৈকত গঙ্গোপাধ্যায়। দিবারাত্রি ক্লাবে পড়ে থেকে ইনভেস্টর জোগাড় করার কাজ তিনি করে গিয়েছেন। কিন্তু ক্লাবের এই সুসময়ে এবার দায়িত্ব নিতে চান না সৈকতবাবু।

এদিকে ক্লাবের সচিব পদ থেকে কল্যাণ মজুমদারের বিদায়ের পর নতুন সচিব হিসেবে আসতে চলেছেন স্বর্ন ব্যবসায়ী রুপক সাহা, যিনি শ্যাম সুন্দর জুয়েলার্সের কর্নধার। ক্লাব সূত্রে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই তিনি সচিব পদে আসার জন্য ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here