কোন আঁধারে রয়েছে তরুণ ফুটবলার শুভ ঘোষের ভবিষ্যৎ? কেরালার উত্তরের অপেক্ষায় ফেডারেশন

0

পানাজি, গোয়া : চলতি জানুয়ারি ট্রান্সফার উইন্ডোতে ভারতীয় ফুটবলে অন্যতম বিতর্কের জায়গা হয়ে দাঁড়িয়েছিল এটিকে-মোহনবাগান ও কেরালা ব্লাস্টার্সের মধ্যেকার কাজিয়া। শুভ ঘোষ ও নংদাম্বা নাওরেমের মধ্যে হওয়া সোয়াপ ডিলে এটিকে-মোহনবাগান পেয়েছিল নাওরেমকে। কিন্তু অনুশীলনের পর দেখা যায়, নাওরেমের এসিএল (অ্যান্টেরিওর ক্রুসিয়েট লিগামেন্ট) ইঞ্জুরি রয়েছে।

আর সেই চোটের কথা কেরালা ব্লাস্টার্স না জানানোয় শুভ ঘোষের ট্রান্সফার আটকে রেখেছে এবং নাওরেমের জন্য বরাদ্দ ২০ লক্ষ টাকার ট্রান্সফার ফিও আটকে রেখেছে এটিকে-মোহনবাগান। এর জেরে তরুণ ফুটবলার শুভ ঘোষের ভবিষ্যত নিয়ে প্রশ্ন উঠেই যাচ্ছে। এই মুহুর্তে কেরালা ব্লাস্টার্সের হয়ে অনুশীলন করলেও মাঠে নামতে পারছেন না বাঙালি এই মিডফিল্ডার।

যেহেতু এটি একটি ডিসপ্যুটে তৈরি হয়েছে, তাই অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন বিষয়টিকে প্লেয়ার্স স্টেটাস কমিটিতে পাঠিয়ে দিয়েছে। ইতিমধ্যেই এটিকে-মোহনবাগান এই নিয়ে ফেডারেশনে অভিযোগ দায়ের করেছে এবং প্রয়োজনীয় নথিপত্র পাঠিয়েছে, আর এখন এই বিষয়ে ফেডারেশন অপেক্ষায় রয়েছে কেরালার উত্তরের জন্য।

এই নিয়ে ফেডারেশনের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, “যখনই আমরা তাদের প্রতিক্রিয়া পেয়ে যাব, সেটি সঙ্গে সঙ্গে কমিটির কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য। আমরা চাই না এই খেলোয়াড় এইসব নিয়ে ভোগান্তির শিকার হোক। শুভ এখনও আটকে রয়েছে যতদিন না প্লেয়ার্স স্টেটাস কমিটি সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। উনি এটিকে-মোহনবাগান থেকে রিলিজ পেয়েছেন কিন্তু কেরালায় যোগ দিতে পারছেন না। কেরালার কাছে কয়েকদিন সময় রয়েছে এই অভিযোগের জবাবে দেওয়ার। যা নথিপত্র আমরা দুই ক্লাব থেকে পেয়েছি, সেগুলি কমিটিকে দেওয়া হয়েছে। এমনকি, এই বিষয়ে কমিটির প্যানেলের কাছে সরাসরি আবেদন করতে পারেন দুই ক্লাবের প্রতিনিধিরা।”

ইতিমধ্যেই কেরালা ব্লাস্টার্সের হেড কোচ কিবু ভিকুনার অধীনে অনুশীলন করছেন শুভ ঘোষ। গত বছরও কিবুর অধীনে মোহনবাগানে ফুল ফুটিয়েছিলেন এই বঙ্গতনয়। আইলিগে তিনটি গোল করেছিলেন শুভ। আর বর্তমানে তাঁর অনুশীলন দেখে খুশি কিবু।

শুভকে নিয়ে কিবু বলেছেন, “ও দলের সাথেই অনুশীলন করছে। খুব ভালোভাবেই ট্রেনিং করছে, খুব ভালো পারফর্ম করছে এবং প্রস্তুতি ম্যাচেও গোল করছে। আমাদের সাহায্য করার জন্য ও তৈরি। আর এখন একমাত্র যে কাজ আমরা করতে পারি তা হল আশা রাখা যাতে সব কিছু ঠিক হয়ে যায়।”