জট সামলাতে এবার এফএসডিএল, মার্চের শেষেই নির্ধারিত হবে লাল-হলুদ ক্লাবের ভবিষ্যৎ

0

কলকাতা: ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে নিয়ে এখন সবচেয়ে বড় আলোচনার বিষয় ইনভেস্টর সংস্থা শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়া। ক্লাবকর্তারা কোনওমতেই ফাইনাল টার্মশিট সই করতে আগ্রহী নয়। চুক্তিপত্র স্বাক্ষরিত না হওয়ায় বোর্ড গঠন হয়ে ওঠেনি। সেই নিয়েই ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কার্যকরী কমিটির সদস্যরা আলোচনায় বসেছিলেন। প্রায় তিন ঘন্টার বেশি আলোচনা পর্ব চলে। গত সেপ্টেম্বরে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের ইনভেস্টর হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে শ্রী সিমেন্ট। এরপরই দল আইএসএল টুর্নামেন্টে প্রবেশ করে।

কিন্তু আইএসএলে খারাপ ফর্ম এবং তা শেষ হতেই লাল-হলুদ শিবিরে ইনভেস্টরের সঙ্গে বিচ্ছেদের কালো মেঘ ঘনিয়ে এসেছিল লাল-হলুদ শিবিরে। ইনভেস্টর সংস্থা শ্রী সিমেন্টের সাথে চুক্তি হওয়ার পর থেকেই ক্লাবকর্তাদের চাপানউতোর চলছিল ফাইনাল টার্মশিট সই নিয়ে। কিন্তু ক্লাবকর্তারা দাবি করেছেন, ইনভেস্টরের পাঠানো শেষ চিঠিতে ক্লাব অবস্থান স্পষ্ট করেছে। তারপর আর কোনও উদ্যোগ নেয়নি ইনভেস্টর।

ক্লাবের বৈঠকের পর লাল-হলুদের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার জানিয়েছেন, “গত ২ ডিসেম্বর ক্লাবের অবস্থায় জানিয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছিল তার উত্তর মেলেনি। এখন অচলাবস্থা কাটাতে এফএসডিএলের প্রতিনিধি তরুণ ঝুনঝুনওয়ালার কাছে আর্জি জানানো হয়েছে। তিনি যদি বৈঠক ডাকেন তাহলে যোগ দিতে আপত্তি নেই ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের।” যদিও বৈঠকে কি আলোচনা হল সেই বিষয়ে মুখ খোলেননি ক্লাবকর্তারা। জানা গিয়েছিল, মার্চের শেষ সপ্তাহেই এর ফয়সালা হতে পারে, কারণ সেই সময় কলকাতায় ফিরছেন শ্রী সিমেন্টের কর্ণধার হরিমোহন বাঙ্গুর। মার্চের ২৪-২৬ তারিখ নাগাদ কলকাতায় আসছেন তিনি। সেই সময়ই নির্ধারিত হবে লাল-হলুদ ক্লাবের ভবিষ্যৎ।