মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনার পর ভ্যাকসিন নিরাপত্তা নিয়ে বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

0

নয়াদিল্লি: মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে বৈঠক করেছেন। যেখানে তিনি দেশের বর্তমান কোভিড- ১৯ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেছেন যে, দেশের কিছু অংশে করোনা ভাইরাস মামলার বিষয়টি উল্লেখ করে ভারত এখন আরও ভাল অবস্থানে রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে ভার্চুয়াল বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, “যৌথ প্রচেষ্টার ফলস্বরূপ, ভারত এখন সুস্থতা ও মৃত্যুর হারের বিষয়ে অন্যান্য দেশের তুলনায় উন্নত অবস্থানে রয়েছে।”

কোভিড- ১৯ ভ্যাকসিনের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, “সুরক্ষা আমাদের পক্ষে গতির মতোই গুরুত্বপূর্ণ, ভারত যে কোনও ভ্যাকসিন তার নাগরিকদের যে কোনও বৈজ্ঞানিক মানদণ্ডেই নিরাপদ রাখবে। রাজ্যের সাথে সম্মিলিত সমন্বয় করে ভ্যাকসিন বিতরণ কৌশল তৈরি করা হবে। রাজ্যগুলিকেও কোল্ড স্টোরেজ সুবিধাগুলি শুরু করতে হবে।” সকলের কাছে কীভাবে ভ্যাকসিন নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন তা নিয়ে শীঘ্রই বিশদ পরিকল্পনা পাঠানোর জন্য রাজ্যগুলিকে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এটি আপনাদের অভিজ্ঞতা মূল্যবান হওয়ায় সিদ্ধান্ত গ্রহণে আমাদের সহায়তা করবে। আমি আপনাদের সক্রিয় অংশগ্রহণের জন্য আশাবাদী। ভ্যাকসিনের কাজ চলছে তবে আমি আপনাদেরকে অনুরোধ করছি যেন কোনও গাফিলতি না ঘটে।”

প্রধানমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীদেরকে সক্রিয় কেসকে ৫ শতাংশের নীচে এবং প্রাণহানির হারকে এক শতাংশের নীচে আনতে কাজ করতে বলেছেন। “ভাল সুস্থতার হার দেখে অনেকে মনে করেন ভাইরাসগুলি দুর্বল এবং তারা খুব শীঘ্রই সুস্থতা লাভ করবে, এর ফলে ব্যাপক অসতর্কতা দেখা দিয়েছে। ভ্যাকসিন নিয়ে যারা কাজ করছেন তারা তা করছেন তবে মানুষ যাতে সজাগ থাকে এবং সংক্রমণ বন্ধ হয় তা নিশ্চিত করার জন্য আমাদের মনোনিবেশ করা উচিত। আমাদেরকে সক্রিয় কেসের হার ৫ শতাংশের নীচে আনতে হবে”, বলেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। এই সভায় প্রধানমন্ত্রী মোদী কোভিড -১৯ কৌশল নিয়ে লিখিতভাবে মুখ্যমন্ত্রীদেরকে তাঁর সাথে মতামত জানাতে বলেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী মোদী কোভিড- ১৯ ভ্যাকসিন কর্মসূচির প্রস্তুতির জন্য রাজ্যগুলিকে জেলা বা ব্লক পর্যায়ে টাস্কফোর্স/ স্টিয়ারিং কমিটি গঠন করতে বলেছেন তিনি।