দু-তিনদিনের মধ্যেই ফিল্ডে ফিরব: হুইল চেয়ারে প্রচার চালানোর বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

0

কলকাতা: বুধবার নন্দীগ্রামে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে গুরুতর আহত হন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু প্রচারপর্ব অসম্পূর্ণ রেখেই কলকাতায় ফিরতে হয় তৃণমূল নেত্রীকে। বাঁ পায়ের গোড়ালি, পায়ের পাতা, গলা ও কাঁধে চোট নিয়ে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। আপাতত আগামী ৪৮ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে। রেয়াপাড়ায় একটি মন্দিরে পুজো দিয়ে বেরানোর সময় ধাক্কাধাক্কিতে পায়ে চোট লাগে তাঁর। তবে এদিন হাসপাতালের বেড থেকেই নিজের বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

একটি ভিডিও বার্তায় তিনি দলীয় কর্মী সমর্থকদের সকলকে শান্ত থাকতে নির্দেশ দেন। প্রয়োজন হলে হুইলচেয়ারেই করবেন ভোটের কাজ। বৃহস্পতিবার ওই ভিডিও বার্তায় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এটা ঠিক যে, কাল খুব জোরে লেগেছিল আমার। আমার হাতে-পায়ে চোট আছে। ইনজুরি আছে। লিগামেন্টে চোট আছে। কাল আমার মাথায় ও চেস্টে পেইনও হয়েছে। গাড়ি থেকে নমস্কার করছিলাম। তখন এত চাপ আসে যে, গাড়িটা যেন আমার গায়ের উপর চেপে যায়। সঙ্গে কিছু ওষুধ ছিল। খেয়ে কলকাতার দিকে রওনা হই।”

তিনি আরও বলেন, “আমি সকলকে অনুরোধ করব, সংযত থাকুন, ভাল থাকুন, এমন কিছু করবেন না, যাতে মানুষের অসুবিধা হয়। আমি আশা করি, দু-তিনদিনের মধ্যেই নিজের ফিল্ডে ফিরে যাব। হয়তো পায়ের প্রবলেম থাকবে, কিন্তু আমি ম্যানেজ করে নেব। মিটিং-টিটিং যা আছে কিছুই নষ্ট করব না। তবে হয়তো কিছুদিন আমায় হুইল চেয়ারে করতে হবে, সেক্ষেত্রে আপনাদের সহযোগিতা চাইব।” কলকাতায় ফিরে এসএসকেএমে-র উডবার্ন ওয়ার্ডের সাড়ে ১২ নম্বর কেবিনে ভর্তি করা হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এরপর বাঙুর ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেসে এমআরআই করা হয় তাঁর। চোট গুরুতর হওয়ায় হুইল চেয়ারে করেই প্রচারের কাজ করার কথা বললেন মমতা।