টিকে থাকার লড়াই: মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির কাছে আবারও বিক্ষোভ SSC চাকরিপ্রার্থীদের

0

কলকাতা: ন্যায্য দাবীর লড়াইয়ে চাকরিপ্রার্থীদের বিক্ষোভ তেমন নতুন ঘটনা নয়। যোগ্য হওয়ার সত্ত্বেও চাকরিপ্রার্থীদের মাথা নত করতেই হয় নেতাদের কাছে, রীতিমত লড়াই করে যেতে হয় তাদের।সামনেই একুশের বিধানসভা ভোট আর তার মাঝেই মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের বাড়ির কাছে চাকরিপ্রার্থীদের বিক্ষোভ করতে দেখা গেল। এসএসসি-র নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির মেধা তালিকার ওয়েটিংলিস্টে রয়েছেন বিক্ষোভকারী প্রার্থীরা।

চাকরি প্রার্থীদের বিক্ষোভের পাশাপাশি চলছে দীর্ঘ অনশনও, কিন্তু তাতেও কোনও লাভ হয়নি। গত ২ মার্চ মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ রত মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, “আমরা ৫৩ দিন ধরে বিধাননগরের করুণাময়ীতে আন্দোলন করছি । প্রায় ৪৩ দিন চলছে রিলে অনশন , এমনকি নবান্ন, এসএসসি-র সদর দফতর আচার্য সদন এবং বিকাস ভবন সব জায়গাতেই আমরা স্মারকলিপি দিয়েছি কিন্তু তাতেও কোনও সুরাহা মেলেনি । তাই মুখ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আরোপ করার জন্য বারংবার তাঁর বাড়ির সামনে আন্দোলন করছি, যাতে তিনি আমাদের সামনে এসে কথা বলেন অন্যথা মাননীয়া যে কেন্দ্র থেকে লড়ছে অর্থাৎ নন্দীগ্রামেও আমরা যাবো”। শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রীর কাছেই নয় শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির সামনেও চাকরি প্রার্থীরা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। বিক্ষোভকারীরা রীতিমতো ক্ষুব্ধ, তাঁদের কথায় এটা স্পষ্ট যে, সরকার বার বার প্রতিশ্রুতি দিয়েও কথা রাখছেনা, গত লোকসভা নির্বাচন থেকে আন্দোলন করছেন তাঁরা কিন্তু তাতেও সরকারের টনক নড়েনি।

প্রতিবাদে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির কাছে সরব হয়েছেন ওয়েটিং লিস্টে থাকা চাকরিপ্রার্থীরা, নেত্রীর দেখা তো মেলেই না উপরন্তু ন্যায্য দাবী জানানোয় পুলিশ তাঁদের আটকে দেয়। এছাড়াও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে লালবাজারেও আটক করে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ। সুতরাং , ভোটের রাজনীতি করতেই ব্যস্ত মাননীয়া মন্ত্রী। ভোটের প্রচারে প্রকাশ্যে ‘মানুষের পাশে থাকার’ কথা দিলেও সেই কথাটির সত্যতা ঠিক কতখানি তা এই আন্দোলনই বলে দেয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here