তুমূল বিক্ষোভ সোদপুর ও চন্দ্রকোনায়, দীর্ঘক্ষণ লাইন দিয়েও মিলছে না ভ্যাকসিন

0

সোদপুর: মহামারীর প্রকোপ প্রবল ভাবে বেড়ে চলেছে। ঠিক সেই মুহূর্তেই চলছে টিকা করণ প্রক্রিয়া। তবে এর মধ্যেই বেশ অনেক জায়গায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে টিকা করণ কারণ পর্যাপ্ত টিকার অভাব। তেমন ঘটনাই ঘটল সোদপুর পানিহাটিতে। করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছিল পানিহাটি পৌরসভার লোকসংস্কৃতি ভবন থেকে। আজ ভোরবেলা থেকে সেখানে পড়ে যায় লম্বা লাইন। মানুষের দীর্ঘ অপেক্ষার পর কর্তৃপক্ষ এর তরফে জানানো হয় আজ সেখানে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে না। আর এর পরেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন এলাকার মানুষজন। তারা রাস্তায় নেমে অবরোধ করেন।

এরপরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌছায়। অবরোধকারীরা পুলিসের আশ্বাসে উঠলেও তাদের দাবি কোনও রকম নোটিস বোর্ড টাঙ্গানো হয়নি আজ ওই ভ্যাকসিন সেন্টারের সামনে। যদি নোটিস টাঙানো হতো কর্তৃপক্ষের তরফে তাহলে তারা এইভাবে ভোর থেকে লাইনে দাড়াতেন না। পৌর প্রশাসক মন্ডলী নোটিস না লাগানোর কথা কার্যত স্বীকার করে নেন।অপরদিকে অবশ্য তাদের দাবি নোটিস লাগানো হয়নি ঠিকই কিন্তু তাদের তরফে মাইক নিয়ে প্রচার করা হয়েছিল যে এখনও পর্যন্ত তারা ভ্যাকসিন পায়নি। আর এক দিকে চন্দ্রকোনা গ্রামীণ হাসপাতালের চিত্র সেখানেও, মানুষ ভ্যাকসিন নিতে এসে তা না পেয়ে তুমুল বিক্ষোভ শুরু করেন। সেখানে পরিস্থিতি সামল দেয় ঘটনাস্থলে পুলিস এসে। জানা গেছে আজ বুধবার সকাল থেকেই করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নেওয়ার জন্য ভিড় জমিয়েছিলেন প্রচুর মানুষ চন্দ্রকোনা গ্রামীণ হাসপাতালে। এরপরেই সকাল দশটা নাগাদ জানানো হয় হাসপাতালে তরফ থেকেভ্যাকসিন নেই ,তাই আজ ভ্যাকসিন দেওয়া হবে না।

আর এরপেরই দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষারত মানুষ চরম ক্ষোভ দেখান যার ফলে হাসপাতালে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। তারা হাসপাতালে এমার্জেন্সি ওয়ার্ডের সামনে বিক্ষোভে দেখান।এরপরেই খবর পেয়ে পুলিশ পৌছায় ও পরিস্থিতি সামাল দেয়। টিকা নিতে আসা মানুষের অভিযোগ গত তিন দিন ধরে তারা টিকা নিতে এসে ঘুরছেন। তারা কোনো ভাবেই টিকা পাননি। আজও ভোর থেকে লাইন দেওয়ার পরে সকাল ১০টা নাগাদ আচমকা হাসপাতাল থেকে ঘোষণা করা হয়,ভ্যাকসিন নেই তাই টিকাকরণ আজ হবে না। ভ্যাকসিন নিতে আসা মানুষের দাবি তাদের তারিখ লিখে কুপন দেওয়া হোক, সেইদিনই এসে ভ্যাকসিন নিয়ে যাবে তারা। যাতে এই ভাবে বারংবার তাদের হেনস্থা না হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here