প্রেমে প্রত্যাখ্যান, বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরেই ছাত্রীকে ধারালো অস্ত্রের কোপ

কৌশিক সালুই, বীরভূম: বিশ্বভারতীর কলাভবনের এক ভিনরাজ্যের ছাত্রীকে ধারালো অস্ত্রের কোপ। অভিযোগ কলাভবনেরই এক ছাত্রের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ছাত্র বিশ্বভারতীর কলাভবনের সেরামিক বিভাগের। নাম অসীম সরকার।

আসাম থেকে পড়তে আসা বিশ্বভারতীর কলাভবনের ডিজাইন ও টেক্সটাইল বিভাগের ফাইনাল ইয়ারের ছাত্রীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ অভিযুক্ত কলাভবনের ছাত্র অসীম সরকারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃত ছাত্রকে বৃহস্পতিবারই বোলপুর আদালতে তোলা হবে।পুলিশ ও কলাভবন সূত্রে খবর, ধৃত ছাত্র অসীম সরকার বেশকিছু দিন ধরেই ভিনরাজ্যের এই কলাভবনের ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। ছাত্রীটি তা গ্রহণ না করায় তাকে উত্যক্ত করছিল সে। বুধবার রাত্রে চরমে পৌঁছায় এই পরিণতি। ফের প্রেমের প্রস্তাব গ্রহণ না করায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর চেষ্টা করা হয় ছাত্রীকে।

ছাত্রীটি বাধা দিতে গেলে অস্ত্রের কোপ পড়ে তার বাঁ হাতে। এরপর স্থানীয়রা ছাত্রীকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে বিশ্বভারতীর নিজস্ব হাসপাতালে। সেখানেই ছাত্রীটির হাতে সেলাই পরে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় তাকে এবং ছাত্রীটি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এহেন অবস্থায় চূড়ান্ত আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ছাত্রীটি। ২০০৮ সালে বিশ্বভারতীর আনন্দসদন ছাত্রীনিবাসে প্রেমে প্রত্যাখ্যানের জেরে শুট আউটের ঘটনা ঘটে। তখন এক ছাত্রীকে হোস্টেলে ঢুকে গুলি করে খুন করে নিজে আত্মঘাতী হয় প্রেমিক।