কলেজে ভর্তির নামে ফের আর্থিক প্রতারণায় জড়াল টিএমসিপি নেতারা

0

সুব্রত সাউ, পশ্চিম মেদিনীপুর: কলেজে ব্যাকডোরে ভর্তি নতুন কিছু নয়। এখন প্রায় প্রতিটি কলেজেই চলে এভাবে ভর্তি। তবে এবার ভর্তির নামে টাকা নিয়ে প্রতারণায় নাম জড়াল টিএমসিপি নেতাদের। ঘটনাটি ঘটেছে মেদিনীপুরের কেশপুর কলেজের। দীর্ঘদিন ক্লাস করার পর ৬২ জন পড়ুয়া জানতে পারে তাঁদের থেকে টাকা নিয়ে তাঁদের প্রতারিত করা হয়েছে। এই প্রতারণায় ওই প্রথম বর্ষের ছাত্রছাত্রীরা পরীক্ষায় বসতে পারবে কি না তা নিয়েও উঠছে সংশয়।

চলতি শিক্ষাবর্ষে ব্যাকডোরে ভর্তি জন্য বেশ কয়েকজন ছাত্রছাত্রী পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুর কলেজের ছাত্রপরিষদের সাধারণ সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করে। এরপর টাকার বিনিময়ে তাঁদের ভর্তি করে নেওয়া হয়। ক্লাসও শুরু করে তাঁরা। তবে সমস্যা শুরু হয় রেজিস্ট্রশনের সময়। সেইসময় ছাত্রদের কলেজ থেকে জানানো হয় তাঁরা ওই কলেজের ছাত্র নয়। তাঁদের কাছে থাকা রসিদ পুরোটাই ভুয়ো। অর্থাৎ টাকার বিনিময়ে তাঁদের ভুয়ো রসিদ দিয়ে ভর্তি করা হয়েছিল।

এই ঘটনার পর ছাত্রছাত্রীরা কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তুলেছে। তাঁদের দাবি, “কলেজের কাছে আমাদের নথি না থাকলে আমরা ক্লাস করলাম কিভাবে? এতদিন তাঁদের চোখে কেন এল না এই বিষয়টি?” এই ঘটনার পর যদিও ওই কলেজ কর্তৃপক্ষের থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া আসেনি। অপরদিকে ছাত্ররা জানাচ্ছে প্রয়োজনে তাঁরা শিক্ষামন্ত্রীর দ্বারস্থও হবে। তবে ছাত্র পরিষদের যে সকল নেতার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ উঠছে, তাঁদের সাথে এখনও কোনওভাবে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না বলে জানায় ছাত্ররা।