এলাকাবাসীকে লকডাউনের মানে বোঝাতে লাঠি ধরল পুলিশ

0

কুশল দাসগুপ্ত, শিলিগুড়ি: দ্বিতীয় দিনেও মানল না শিলিগুড়ির মানুষ। প্রধানমন্ত্রী মঙ্গলবার ঘোষণা করার পরেও মানেনি মানুষ। শিলিগুড়ির হাকিমপাড়া, সুভাষপল্লী এবং বিধান মার্কেটে এত ঘোষণা করা হলেও মানুষ কমায়নি ভিড়।

মুদির দোকান এবং সবজির দোকানে ভিড় চোখে পড়ার মতো। মানুষ যে কেন মানছেন না নিয়ম, বুঝতেই পারছি না বলে জানালেন স্থানীয় এক যুবক। নিয়ম না মেনে রাস্তায় ঘুরছেন অনেকেই। যার ফলে পুলিশকে অকারণে আক্রমণাত্মক হতে হয়েছে।

এদিন সকাল থেকেই শিলিগুড়ির বিভিন্ন জায়গাতে জটলা দেখা গিয়েছে। বারবার পুলিশ প্রশাসনের হুঁশিয়ারি দেওয়া সত্ত্বেও শিলিগুড়ির বিভিন্ন এলাকাতে দেখা দিয়েছে ভিড়। নিয়ম ভেঙে রাস্তায় বের হয়ে অনেকেই পড়ছেন পুলিশের মুখে।

শিলিগুড়ির হাসমী চক, গেটবাজার লেকটাউনেও নিয়ম মানছেন না সাধারণ মানুষ। ফলে বাধ্য হয়েই লাঠি চার্জ করতে হচ্ছে পুলিশকে। শিলিগুড়ির এনটিএস মোড়েও জটলা দেখে লাঠি চার্জ করে পুলিশ। নিয়ম না মানাতে পুলিশের হুঁশিয়ারির মুখে পড়তে হচ্ছে অনেককেই।

এদিকে জলপাইগুড়িতেও একই অবস্থা। নিয়ম ভঙ্গ করে অনেককেই নিজের ঘরে ফিরতে হয়েছে। শিলিগুড়ির মতো জলপাইগুড়িতেও সকাল থেকেই ঘুরছে পুলিশ এবং র‍্যাফ। হুঁশিয়ারি দিয়ে বহু মানুষকেই ঘরে ফিরিয়েছেন তারা। সবমিলিয়ে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও প্রশাসন এবং সাধারণ মানুষের লুকোচুরি চলল।

অন্যদিকে, শিলিগুড়ির রবীন্দ্রনগরে একটি দোকানের সামনে গোল চিহ্ন করে রাখা থাকতে দেখা যায়। যাতে দোকানদারেরা সহজেই জিনিস দিতে পারে এবং ক্রেতারা সহজেই Social distence রাখতে পারে তার জন্যই এমন ব্যবস্থা। দোকানদারেরা জানালেন এইভাবে জিনিস দিলে রোগ সংক্রমণের সুযোগ কম থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here