দেশ লকডাউন, কিন্তু বন্ধ নেই জাল নোটের কারবার

0

মালদা:  লকডাউনের মাঝেও সুযোগ খুঁজে চোরাচালান করছে চোরাচালানকারীর দল। কয়েক দিন আগেই দক্ষিণবঙ্গীয় সিমান্তে উদ্ধার করা হয়েছিল ব্রাউন সুগার।  আবারও সেই সীমান্ত এলাকা থেকে উদ্ধার করা হল চার লক্ষ টাকার ভারতীয় নকল মুদ্রা। শনিবার মালদা জেলার দুটি জায়গা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে এই বিপুল অঙ্কের নকল  ভারতীয় টাকা। সেই সঙ্গে এক জন চোরাচালানকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রথম ঘটনায় ২৪ বিএন-এর বিএসএফ বাহিনী কালিয়াচাক এলাকার এক গ্রামবাসী মোঃ তাশলিম শেখ (৪৫) কে আটক করে। যিনি তার জমি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক সীমান্তের দিকে যেতে চেষ্টা করছিল। ওই ব্যক্তির উপর নজর রাখে বিএসএফ বাহিনী। রাত্রি ১০.১০ নাগাদ সন্দেহভাজক ব্যক্তি হিসাবে তাকে জিরো-লাইনের কাছ থেকে আটক করা হয়। আটক করার পর তল্লাশি চালিয়ে তার জামাকাপড়ের ভিতর থেকে উদ্ধার করা হয় দু লক্ষ টাকার ভারতীয় জাল নোট।

বিএসএফ-এর এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন, “গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিকে এফআইসিএন দিয়ে গোপালগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এক দিন আগেই সুখদেবপুর বিওপি-তে মোতায়েন করা সৈন্যরা আরও এক জনকে গ্রেফতার করেছিল। তার কাছ থেকেও দু লক্ষ টাকার নকল মুদ্রা উদ্ধার করা হয়েছে। ওই নকল মুদ্রাগুলি বৈষ্ণবনগর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।”

দক্ষিণবঙ্গ সীমান্ত বিএসএফ বাহিনী অভিযান চালিয়ে ২০২০ সালে ২০ লক্ষ ৬৩ হাজার টাকার জাল নোট উদ্ধার করেছে। সেই সঙ্গে এই কাজের সঙ্গে জড়িত কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।