কেন্দ্রের তোপের পর রেলপথে বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য চালানোর পরামর্শ মমতা সরকারের

0

কলকাতা: করোনা ভাইরাস লকডাউন চলাকালীন দক্ষিণবঙ্গের নদিয়া জেলায় গেদের মাধ্যমে ভারত ও বাংলাদেশের বাণিজ্য চলতে পারে, পশ্চিমবঙ্গ সরকার কেন্দ্রকে এমনটাই প্রস্তাব দিয়েছে। লকডাউন চলাকালীন উভয় প্রতিবেশী দেশের মধ্যে সীমান্ত পারাপারের মাধ্যমে পণ্য পরিবহনের অনুমতি না দেওয়ার জন্য বুধবার কেন্দ্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার কথায় এই রেলপথের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, “কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যে যে চিঠিগুলি বিনিময় হয়েছিল সেগুলির মধ্যে একটি প্রস্তাব এসেছে যে ট্রেনের মাধ্যমে গেদে হয়ে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য চালিয়ে যাওয়া যাবে। এটি নিরাপদ ও গ্রহণযোগ্য।” কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয়​ভাল্লা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাকে বুধবার একটি চিঠিতে জানিয়েছিলেন যে রাজ্যতে ভারত-বাংলাদেশের সীমান্ত অতিক্রম করে পণ্য পরিবহন শুরু হয়নি। এটি করে পশ্চিমবঙ্গ কেবল বিপর্যয় পরিচালন আইনের আওতায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনা লঙ্ঘন করছে তা নয়, ভারতের সংবিধানের ২৫৩, ২৫৬ এবং ২৫৭ ধারার অপরাধও করছে।

এর জন্য আলাপন আগে বলেছিলেন যে উত্তর চব্বিশ পরগনার পেট্রাপোলে কিছু স্থানীয় সমস্যা দেখা দিয়েছে। “পেট্রাপোলের ক্ষেত্রে কিছু সরকারি সমস্যা দেখা দিয়েছে। সীমান্তের লোকেরা হৈচৈ করছে। গোটা বিষয় সঠিক ভাবে পরিচালনা করা হচ্ছে। জড়িত সমস্ত দিক বিবেচনা করে আমরা যথাসময়ে বিষয়টি সমাধান করব। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্য নিয়ে বেশ কয়েকটি বিষয় রয়েছে। তাদের বিস্তারিত আলোচনার পরে বিবেচনা করা হবে।” বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের বৃহত্তম বাণিজ্য অংশীদার। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য ভারতে বাংলাদেশের রফতানি হয়েছিল ৯.২১ বিলিয়ন ডলার এবং একই সময়ের জন্য বাংলাদেশ থেকে আমদানি ছিল ১.২২ বিলিয়ন ডলার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here