ত্রাণ শিবিরে নেই খাবারের ব্যবস্থা, উম্পুন মোকাবিলায় অগ্রসর হয়েও ব্যর্থ রাজ্য সরকার

0

কলকাতা: ধেয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন আমফান। মঙ্গলবার সন্ধ্যাতেই প্রবল ঘূর্ণি ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা ছিল উপকূলবর্তী অঞ্চলগুলিতে। বুধবার দুপুরে ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়বে কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী জেলাতেও। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী মঙ্গলবার রাত থেকে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলাতে শুরু হয়েছে হালকা হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি। বুধবার সকাল থেকে তা আরও জোরালো হয়েছে। উপকূলবর্তী এলাকাতে বসবাসকারী মানুষদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কোনো রকম কমতি রাখা হয়নি সরকারের পক্ষ থেকে। এনডিআরএফ, বিএফএফ বাহিনীও সুপার সাইক্লোন আমফানের মোকাবিলায় তৈরি রয়েছে। ২৫ হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরানোর কাজ চলছে। কিন্তু ত্রাণ শিবিরে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হলেও সেখানে মানুষের জন্য ব্যবস্থা করা হয়নি কোনো খাবারের। এমনটাই অভিযোগ করছেন ত্রাণে আশ্রয় পাওয়া সাধারণ মানুষ। মঙ্গলবার রাত থেকেই তাদের দেওয়া হয়নি কোনো খাবার।

এমনকি বুধবার সকালেও না খেয়ে আছেন তারা। প্রশাসনের এই গাফিলতি নিঃসন্দেহে লজ্জাজনক। দুর্যোগ মোকাবিলায় মানুষের সুরক্ষার্থে ব্যবস্থা নিলেও খাবারের আয়োজন না করায় ব্যর্থ রাজ্য সরকার। দীঘায় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী NDRF কমান্ডো বাহিনী গ্রাউন্ড জিরোতে নেমে কাজ শুরু করেছে। দীঘা উপকূল এলাকা থেকে প্রায় ১৬ হাজার গ্রামবাসীকে ত্রাণ শিবিরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এমনটাই জানা গিয়েছে জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে।

চলতি বছরের সবচেয়ে বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় উম্পুন বাংলার উপকূলে কড়া নাড়ছে। বুধবার বিকেল ৪ টে থেকে ৬ টার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে আছড়ে পড়বে উম্পুন। মঙ্গলবারেই শক্তি বাড়িয়ে সুপারসাইক্লোনে পরিণত হয়েছে সে। বলা বাহুল্য, গত কয়েক বছরে বঙ্গোপসাগরের উপর তৈরি হওয়া ঘূর্ণিঝড়ের মধ্যে এটিকে অন্যতম বিধ্বংসী বলে মনে করছেন আবহবিদরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here