“কাল নাগিনীর মতো মানুষের প্রাণ নিচ্ছে”, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে টিপন্নী তৃণমূল সাংসদের

0

কলকাতা: তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে ‘বিষাক্ত সাপের’ সাথে তুলনা করেছেন। তিনি বলেন, “কাল নাগিনী কাটার ফলে মানুষ যেভাবে মারা যায়, তেমন ভাবে লোকেরা সীতারামণের কারণে মারা যাচ্ছে।” বিজেপি এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে এবং বলেছে যে মন্তব্যটি বর্ণবিদ্বষী এবং নারী বিরোধী। শনিবার বাঁকুড়ায় জ্বালানির দাম বৃদ্ধি এবং রেলের প্রস্তাবিত বেসরকারীকরণের বিরুদ্ধে একটি সমাবেশে বক্তব্য রাখার সময় কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের অর্থমন্ত্রীর নির্মলা সীতারমণের পদত্যাগের দাবি জানান।

তিনি বলেন, “যেমন একটি বিষাক্ত সাপ ‘কাল নাগিনী’ একজন মানুষকে কামড়ায়, তেমনি দেশের মানুষ নির্মলা সীতারমণের কারণে একের পর এক মরে যাচ্ছে, তিনি দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করছেন।” তৃণমূল লোকসভার সদস্য কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় নির্মলাকে “বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ অর্থমন্ত্রী” হিসাবে বর্ণনা করেন। বিজেপি তার মন্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। বিজেপির মুখপাত্র সম্বিত পাত্র কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যের নিন্দা করে বলেন, “তৃণমূলের সাংসদ সদস্য অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে কাল নাগিনী বলেছেন, এটি অত্যন্ত নিন্দনীয়। এই মন্তব্য সেই অঞ্চলে করা হয়েছে যেখানে প্রতিটি বাড়িতেই মা কালীর পূজা হয়। মন্তব্যটি কেবল বর্ণবাদী নয়, নারী বিরোধীও।”

বাংলার বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দাবি করেছেন যে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূল প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের নেতাদের উপর কোনও নিয়ন্ত্রণ রাখেন না। তিনি বলেন, “তৃণমূলে দুর্নীতি উপর থেকে নীচে ছড়িয়ে পড়েছে। তারা অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েছে এবং তাদের অনেকেই ক্ষমতাসীন দলের পরিস্থিতি থেকে দৃষ্টি আকর্ষণ করতে এই সব ভিত্তিহীন কথা বলছেন। আমরা এই জাতীয় মন্তব্যে তেমন গুরুত্ব দিই না। হতাশায় তারা এ জাতীয় অবাস্তব কথা বলছে।” কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীরও সমালোচনা করেন। তিনি অভিযোগ করেন যে, প্রধানমন্ত্রী একটি নতুন ভারতের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন এবং জিডিপি প্রবৃদ্ধির হারকে “অত্যন্ত দরিদ্র” অবস্থায় এনে তিনি এই কাজ সম্পাদন করেন।