হিংসা, দুর্নীতি বাংলা প্রশাসনের অঙ্গ: রাজ্যপাল

0

কলকাতা : গত বছরের পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এবং প্রকাশ্য বিবৃতিতে তৃণমূল কংগ্রেস (টিএমসি) সরকারের সমালোচনা করার পরে, বৃহস্পতিবার রাতে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় ইউটিউবে একটি বার্তা দেন। তাঁর প্রথম বছরের সমাপ্তি উপলক্ষে, তিনি তাঁর প্রথম ইউটিউব ভিডিও আপলোড করেছেন। এটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা, লোকসভার স্পিকার, ভারতীয় ও বিদেশী গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং বিভিন্ন স্থানে তাঁর সফরের ছবি সম্বলিত একটি সম্বোধন। এগুলি সমস্ত ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর এবং ধনকড়ের ভয়েস-ওভার দিয়ে তৈরি করা হয়েছে।

যদিও ভিডিওতে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সাথে রাজ্যপাল এবং তাঁর স্ত্রীর সাথে বেশ কয়েকটি ছবি আছে কিন্তু রাজভবন এবং টিএমসি সরকারকে একসাথে মিলিয়ে, ধনকড় তাঁর রাজ্য পরিচালনাকে সত্যজিৎ রায়ের “হীরক রাজার দেশে” নামক সিনেমার সাথে সাথে তুলনা করেছেন। এর আগেও একটি টুইটের মাধ্যমে এই বিষয়ে তিনি কথা বলেছেন তবে এই ভিডিওটিতে আগের চেয়ে আরো অনেক কিছু বলেছেন।

সত্যজিৎ রায় তাঁর সিনেমাতে এমন এক রাজার চরিত্র দেখান যে একটা গোটা হীরার খনি নিয়ে আচ্ছন্ন ছিলেন এবং গণ বিপ্লব দ্বারা ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগে কৃষক, শ্রমিক ও শিক্ষার্থীদের দাসত্ব ও ক্লিনিকাল ব্রেইন ওয়াশিংয়ের দ্বারা অত্যাচার করেছিলেন। পশ্চিমবঙ্গ ও কলকাতার ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং জনগণের প্রশংসা করার পরে, ধনকড় বলেছেন, “প্রশাসনের কিছু বিষয় উদ্বেগের কারণ। পুলিশি সুরক্ষার আওতায় হিংসা, দুর্নীতি, আধিপত্যবাদ ও গুন্ডামি (রাফিয়ান ক্রিয়াকলাপ) ইত্যাদি প্রশাসনের একটি অবিচ্ছিন্নঅংশে পরিণত হয়েছে। আমি নিশ্চিত যে সত্যজিৎ রায় বাংলার বর্তমান অবস্থা দেখে কখনোই খুশি হতেন না।”

ধনকড় আরও বলেছেন যে, “গণতন্ত্রকে স্বাভাবিক করার জন্য অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করা প্রয়োজন তবে যদি নির্বাচনের মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে কোনো কারচুপি হয় তবে তা সম্ভব হয় না। প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভার্চুয়াল বৈঠকে কোনও নাম না নিয়েই ধনকড় সম্পর্কে ব্যানার্জি অভিযোগ করার তিনদিন পরে ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত কবিতা “চিত্ত যেথা ভয় শূণ্য, উচ্চ যেথা শির”-এর উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেছেন যে, “আমরা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের চিন্তাভাবনা থেকে অনেক দূরে রয়েছি।” উল্লেখ্য, ভিডিওটি জাতীয় সংগীত এবং গণমাধ্যমে পাওয়া ধনকড়ের কিছু ক্লিপিংস-এর পর শেষ হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here