পুলিশের বিরুদ্ধে বিতর্কিত মন্তব্য করায় জেলা বিজেপি সভাপতিকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ

0

কৌশিক সালুই, বীরভূম: ফের বীরভূম জেলা বিজেপি সভাপতি শ্যামাপদ মন্ডলকে থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হল। বারবার বিতর্কিত মন্তব্য করায় রামপুরহাট থানার পর এবার সিউড়ি থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা তাকে। বুধবার তিনি দুপুরবেলায় উপস্থিত হন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। একটি সভা থেকে দলের মহিলা কর্মীদের অস্ত্র হাতে রাস্তায় নামা এবং পুলিশকে হুমকির পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশের স্বতঃপ্রণোদিত মামলা।

দলের মহিলা মোর্চার সদস্যদের অস্ত্র হাতে রাস্তায় নামার নিদান দেন বীরভূম বিজেপির জেলা সভাপতির শ্যামাপদ মণ্ডল। গত ১৪ সেপ্টেম্বর সিউড়ি থানায় বিজেপির মহিলা মোর্চার স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি ছিল। সেখানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে শ্যামাপদ শাসক দল এবং পুলিশকে তীব্রভাবে আক্রমণ করেন। এমনকি তৃণমূলের সন্ত্রাস রুখতে মহিলাদের অস্ত্র হাতে রাস্তায় নামার অনুরোধ করেন। সেদিন তিনি বলেছিলেন, “আপনারা (ওই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী মহিলা মোর্চার সদস্যদের উদ্দেশ্যে) দুর্গার স্বরূপ। তাই দুর্গার মত দশ হাতে দশটা অস্ত্র নিয়ে, কালির মত হাতে খড়্গ নিয়ে রাস্তায় নামুন। যা কিছু হয় আমরা দেখে নেব।”

তৃণমূলের বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে নামার অনুরোধ জানানোর পাশাপাশি পুলিশের ঘুম ছুটিয়ে দেওয়ারও হুঁশিয়ারী দিয়েছেন শ্যামাপদ মণ্ডল। তিনি পুলিশকে উদ্দেশ্য করে সেই দিন বলেন, “আপনারা যদি মনে করেন বিজেপি কর্মীদের শান্তিতে ঘুমাতে দেব না, শান্তিতে খেতে দেব না। তাহলে আমিও কথা দিলাম, রাজনৈতিক আন্দোলনের মাধ্যমে বীরভূম জেলার কোন পুলিশকে শান্তিতে ঘুমাতে দেব না, চতুর্দিকে ছুটিয়ে মারব। আমরা প্রতিদিন কোথাও না কোথাও কোন না কোন কার্যক্রম করব। আর এই ভাবেই দিন দুপুরে খেয়ে না খেয়ে পুলিশ বন্ধুদের দাঁড় করিয়ে রাখবেন। অর্থাৎ আমরাও ঘুমাবো না আপনাকেও ঘুমাতে দেব না।”

এই দুটি বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সিউড়ি থানা মামলা দায়ের করেন। তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১১৬, ১১৭, ১৫৩, ১৮৯, ২৬৯, ২৭০, ৫০৪, ৫০৫, ৫০৬/৩৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়।