মৃত বিজেপি নেতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন কৈলাস-মুকুল, সিবিআই তদন্তের দাবি

0

কলকাতা: হাতে গোনা কয়েক মাস বাকি বাংলায় বিধানসভা নির্বাচন। সেই নির্বাচনে জিততে মরিয়া বিজেপি। সেই মতোই ঘুঁটি সাজাচ্ছে বঙ্গ বিজেপি। তবে তার আগেই রবিবার দুষ্কৃতিদের গুলিতে খুন হয়েছেন ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং-এর ডান হিসাবে পরিচিত মণীশ শুক্লা। এই ঘটনায় কার্যত ফুঁসছে বঙ্গ বিজেপি। বিজেপি নেতা খুনের ঘটনার দয় তৃণমূলের উপর চাপিয়েছে বঙ্গ বিজেপি। মণীশ শুক্লার খুনের জন্য আজ ব্যরাকপুড়ে পালিত হচ্ছে বনধ। রাস্তাঘাট প্রায় সুনসান। বিজেপি শীর্ষ নেতারা অর্থাৎ কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়রা সোমবার মণীশ শুক্লার পরিবারের পাশে দাঁড়াতে তাঁর বাড়ি যান। সেখান থেকেই এই খুনের ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

বিজেপি নেতা তথা আইনজীবী মণীশ শুক্লাকে খুনের ঘটনায় রাজ্য পুলিশের হাত রয়েছে বলেই অভিযোগ করেছে বিজেপি। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করে সমবেদনা প্রকাশ করেন বিজেপির শীর্ষ নেতারা। সেই সঙ্গে সবরকম সাহায্যের পাশাপাশি ন্যায্য বিচার পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন। কৈলাস বিজয়বর্গীয় স্পষ্ট জানান, ”বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের তদন্তে ভরসা নেই। কারণ, এটা মনোজ বর্মা, অজয় ঠাকুরের ষড়যন্ত্রেই ঘটেছে। সিবিআই বা যে কোনও কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে দিয়ে তদন্তের দাবি করছি।” প্রসঙ্গত অর্জুন সিং আগে অভিযোগ করেছিলেন তাঁর প্রাণ সংশয়য়ের আশঙ্কা রয়েছে বলে। সেই অভিযোগের প্রসঙ্গ টেনে বিজয়বর্গীয় বলেন, ‘ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং অনেক আগে থেকেই দাবি করছেন, তাঁকে মারার জন্য এখানকার কমিশনার অনুজ বর্মা ও অ্যাডিশনাল কমিশনার অজয় ঠাকুরকে সুপারি দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।’

এই ঘটনার সঙ্গে পুলিশের হাত রয়েছে বলেই অভিযোগ করা হয়েছে। সিবিআই তদন্তের জন্য মুখ্যমন্ত্রী অনুমতি না দিলে আদালতে যাবে বিজেপি। এমনটাই হুঁশিয়ারি দিয়েছে। সেই সঙ্গে মণীশ শুক্লার খুনের যাবতীয় তথ্য পাঠানো হবে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার কাছে। অন্য দিকে মণীশ শুক্লার মৃতদেহ রাখা রয়েছে এনআরএস হাসপাতালের মর্গে। সেখানেই উপস্থিত হয়েছিলেন অরবিন্দ মেনন। তবে মণীশ শুক্লার মৃতদেহ আনতে গেলে তাঁকে হাসপাতালে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। সেই নিয়ে এনআরএস-এর সামনে বেশ উত্তেজনা তৈরি হয়। পাশাপাশি দলীয় কর্মী, সমর্থকরা সকাল থেকে বারাকপুরের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তা অবরোধে নেমেছেন। টিটাগড়, শ্যামনগর, আমডাঙায় রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে চলছে অবরোধ, উত্তপ্ত পার্শ্ববর্তী এলাকা। বন্ধ রয়েছে দোকানপাঠ। সবমিলিয়ে বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার খুন নিয়ে উত্তাল বঙ্গের রাজনীতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here