ফের বিতর্ক অনুব্রত মণ্ডলের সভায়, বুথ সভাপতিকে সভাস্থল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ

0

কৌশিক সালুই, বীরভূম: ফের বিতর্ক বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাঁইথিয়া ব্লকের বুথ সম্মেলনে। আগের দিন বুথ সভাপতির কাছ থেকে মাইক্রোফোন কেড়ে নেওয়ার পর বৃহস্পতিবার দলের গোষ্ঠী কোন্দল এর কথা বলতেই বুথ সভাপতিকে সভাস্থল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। যদিও তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব বিষয়টি সামান্য ঘটনা বলে এড়িয়ে গিয়েছেন। তবে যদি ঘটনায় কেউ দোষী থাকে তাহলে দলের জেলার শীর্ষ নেতৃত্ব তার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলেই জানানো হয়েছে।

এদিন সাঁইথিয়া ব্লকের বনগ্রাম পঞ্চায়েতের মারকোলা গ্রামের বুথ সভাপতি শান্ত মন্ডলকে সভাস্থল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তিনি জনসমক্ষে মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে পঞ্চায়েত ও ব্লকের শীর্ষ নেতৃত্বের বিভাজনের কথা বলেছিলেন। জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল তাকে তাদের বুথে বিগত লোকসভা নির্বাচনে হেরে যাওয়ার কারণ জিজ্ঞাসা করতেই তিনি দাবি করেন আমাদের গ্রামে যিনি অঞ্চল সভাপতি আছেন তিনি কোন সভা মিটিং করেন না। এমনকি যিনি ব্লক সভাপতি আছেন তিনি কখন যে কার পক্ষে থাকেন তাও বুঝতে পারি না। কখনো প্রধানের দলে আবার কখনো অঞ্চল সভাপতির পক্ষে। এই শুনে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “মাইকে কিছু বলতে বারণ করেছিলাম না। যা থাকবে লিখিত দেবেন। তাও আপনি বললেন। প্রেস তো আপনার দিকেই তাকিয়ে আছে। এবার দেখাবে বড় বড় করে। যান আপনার কথা শুনবো না।”

এই কথা বলার পর সেই বুথ সভাপতিকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে ব্লক সভাপতির অনুগামীদের বিরুদ্ধে। এই নিয়ে সভাস্থলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। দুপক্ষের মধ্যে বচসাও শুরু হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে সাঁইথিয়া সহ-সভাপতি পিনাকী লাল দত্ত ও বনগ্রাম পঞ্চায়েতের পর্যবেক্ষক শান্তনু রায়কে নামতে হয়। সাঁইথিয়া ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সাবের আলী বলেন,” খুবই সামান্য ঘটনা। কাউকে বের করে দেওয়া হয়নি। হাতের পাঁচটা আঙুল তো সমান হয় না। বিষয়টি এমন কিছু না”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here