উৎসবের আগে দুঃস্থ মানুষের হাতে বস্ত্র সহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী তুলে দিলেন তৃণমূলের ফারহাদ

0

রায়গঞ্জ: কথায় বলে বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বণ। বিভিন্ন ধর্মের মিলনক্ষেত্র বাংলার মাটিতে নানা রকম উৎসব সারা বছর ধরে চলতে থাকে। বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দূর্গা পূজার সন্ধিক্ষণে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার দেগঙ্গা, হাড়োয়া সহ পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে নিজস্ব উদ্যোগে অসহায় দুঃস্থ মানুষের হাতে বস্ত্রসামগ্রী, হ্যান্ড স্যানিটাইজার সহ বিভিন্ন দ্রব্যাদি তুলে দেন জেলার ৩৬ নং জেলা পরিষদ কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত সদস্য বর্তমান জেলার বন ও ভূমি স্থায়ী সমিতির কর্মাধ্যক্ষ তথা বিশিষ্ট শিক্ষক নেতা মাননীয় একেএম ফারহাদ সাহেব। “ধর্ম যার যার উৎসব সবার”- পশ্চিমবঙ্গের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলাবাসী জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের জন্য তিনি সমানভাবে উপহারের ডালি তুলে দেন।

দূর্গাপূজা উদযাপন উপলক্ষ্যে প্রত্যেক পূজা কমিটিগুলোকে পঞ্চাশ হাজার টাকা অনুদান হিসেবে প্রদান করা হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে। সাধারণ মানুষের জীবন জীবিকার কথা মাথায় রেখে মুখ্যমন্ত্রী এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে দেশের শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষেরা। বিশিষ্ট শিক্ষক নেতা তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের বন ও ভূমি স্থায়ী সমিতির কর্মাধ্যক্ষ একেএম ফারহাদ সাহেব জন প্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার আগে থেকেই সাধারণ মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করে চলতেন এবং যেকোনো আপদে-বিপদে মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়াতেন। ২০১৮ সালে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়া এবং জেলা নেতৃত্বের ইচ্ছায় কর্মাধ্যক্ষ নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই তার কাজের গতি আরও ত্বরান্বিত হয়েছে।

লকডাউন পরিস্থিতি আম্ফান ঘূর্ণিঝড় ইত্যাদি সাধারণ মানুষের জীবনকে তছনছ করে দিয়েছে আর এইরকম মুহূর্তে দিনরাত এক করে মানুষের পাশে থেকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজা শুরু হতে চলেছে তারি প্রাক্কালে দুস্থ অসহায় মানুষের হাতে নিজস্ব উদ্যোগে নতুন জামাকাপড়,মাক্স, স্যানিটাইজার ইত্যাদি সামগ্রী তুলে দেন ফারহাদ সাহেব। তৃণমূল কংগ্রেসের একজন নিষ্ঠাবান সৈনিক হিসাবে ফারহাদ সাহেব বলেন, “আমাদের গর্বের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনুপ্রেরণায় ও তাঁর বিশ্বস্ত দুই সেনাপতি ফিরহাদ হাকিম ও জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের নির্দেশমতো সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাওয়ার চেষ্টা করে থাকি। আমরা চাই যার যার ধর্ম শেষে পালন করুক কিন্তু উৎসব আমরা সবাই সামগ্রিকভাবে পালন করব এটাই সম্প্রীতির বাংলা।”

তিনি আরও বলেন, “আর সম্প্রীতির মুখ্যমন্ত্রী নীতি আদর্শের প্রতি তার বাণী কেই আমরা পাথেয় করে সমৃদ্ধশালী ঐক্যবদ্ধ সুষ্ঠু বাংলা গড়ে তুলবো এটাই আমাদের অঙ্গীকার। আপামর বাংলাবাসীকে শুভ শারদীয়ার প্রীতি শুভেচ্ছা ও আন্তরিক ভালোবাসা আমার হৃদয়ের অন্তস্থল থেকে জানাই। করোনা মহামারী থেকে আমাদের মুক্ত থাকার জন্য ফারহাদ সাহেব তিনটি বাণীকে মেনে চলার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে অনুরোধ করে বলেন আপনারা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন, মাক্স পরুন, স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন তবেই আমরা করোনামুক্ত বাংলা করতে পারব।”

তিনি আরও আশা প্রকাশ করেন আগামী দিনগুলোতে বিভাজন কামি কোন শক্তি এই বাংলার শান্তির মাটিকে অশান্তির চক্রান্তে আবদ্ধ করতে পারবে না। শিক্ষিত বাঙালি সমাজ তারা জানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নকে হাতিয়ার করে সমৃদ্ধশালী,সম্প্রীতির বাংলা বিরাজ করবে যা ভারত সেরার মর্যাদা দখল করবে। পূজোর প্রাক্কালে দুস্থ অসহায় মানুষের হাতে নিজস্ব উদ্যোগে বস্ত্রসামগ্রী, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাক্স সহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি তুলে দেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ৩৬ নং জেলা পরিষদ কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত সদস্য বর্তমান জেলার বন ও ভূমি স্থায়ী সমিতির কর্মাধ্যক্ষ তথা বিশিষ্ট শিক্ষক নেতা সুখ দুঃখের সাথী মাননীয় একেএম ফারহাদ সাহেব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here