যে আদিবাসীর বাড়িতে অমিত শাহ খেয়েছিলেন, সেই খাবার বাইরে আনা হয়েছিল: অভিযোগ মমতার

0

 

বাঁকুড়া: পশ্চিমবঙ্গে আগামী বছর বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে, তবে রাজ্যের রাজনৈতিক পারদ ইতিমধ্যেই চড়ছে। ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে যে রাজনৈতিক লড়াই চলছে বাংলা দখলের। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ পশ্চিমবঙ্গ সফরে করেছিলেন, যেখানে তিনি আদিবাসীদের আকর্ষণ করার জন্য রাজ্যের বাঁকুড়া জেলার একটি উপজাতি পরিবারের বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজ করেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আদিবাসী পরিবারের বাড়িতে অমিত শাহের মধ্যাহ্নভোজকে নিয়ে বড়সড় আক্রমণ করেছেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কৌতুকপূর্ণভাবে বলেছেন যে, একটি উপজাতির বাড়িতে অমিত শাহের খাবার কেবল লোক দেখানো ছিল।অমিত শাহ ফিরে যাওয়ার পর পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাঁকুড়া পৌঁছে গিয়েছেন। সোমবার মুখ্যমন্ত্রী বাঁকুড়ায় এক সভায় বক্তব্য রাখেন। এ সময় তিনি আদিবাসীদের পক্ষে অনেক ঘোষণাও করেছিলেন। তিনি বিরসা মুন্ডার জন্মবার্ষিকীতে সরকারী ছুটি ঘোষণা করেন। জনসমাবেশকে সম্বোধন করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অমিত শাহকে লক্ষ্য করে বলেছেন যে অমিত শাহ যে আদিবাসীর বাড়িতে আহার করেছিলেন সেই খাবার বাইরে থেকে আনানো। উপজাতীয় বাড়ির খাবার কেবল শো-অফ ছিল। ছবি তোলার জন্য বিজেপি এই সব করেছিল।

জনসমাবেশে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছেন যে, “পশ্চিমবঙ্গে আবার আমাদের সরকার গঠিত হবে। আমরা বাংলায় সরকার গঠনের সাথে সাথে নিখরচায় রেশনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেব। আমরা আমাদের জনগণের ভাল যত্ন নিয়েছি, জুন অবধি বিনামূল্যে রেশন ঘোষণা করেছি।” অমিত শাহকে কটাক্ষ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন যে, “বিজেপির লোকেরা মিথ্যা আশ্বাস দিচ্ছে, মানুষ এটা বুঝতে পেরেছে। আমি আপনাকে বলতে চাই যে মিথ্যা দাবি ও অভিযোগ বেশি দিন স্থায়ী হবে না।”