“ঘাড় ধরে বের করে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হবে এই সরকারকে”, তৃণমূলকে কটাক্ষ ভারতী ঘোষের

0

পার্থ খাঁড়া, হলদিয়া: সামনেই বিধানসভা নির্বাচন, আর তার আগেই শাসক দল তৃণমূল ও রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি লড়াইয়ে। মঙ্গলবার থেকেই রাজ্য সরকারের প্রকল্প দুয়ারে দুয়ারে সরকারের সূচনা হয়েছে। সেই নিয়ে এবার কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। তবে এদিন শুভেন্দু অধিকারী প্রসঙ্গে ভারতী ঘোষকে প্রশ্ন করা হলে তিনি কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

এদিন প্রেম শিল্পনগরী হলদিয়ার গিরিশ মোড় থেকে সিপিটি বাজার পর্যন্ত পদযাত্রা করেন ভারতী ঘোষ। সেখানে ভারতী ঘোষের সঙ্গে কয়েকশো কর্মী-সমর্থক পা মেলান। বিজেপির মিছিলে আসার সময় কৌশিক বারিককে তৃণমূলের লোকজন মারধর করে পা হাত ভেঙ্গে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। সেই আহতকে মঞ্চে তুলে পথ সভায় মঞ্চে দেখানো হয় দর্শকদের কাছে। এই পদযাত্রাতেই রাজ্য সরকারের নয়া এই প্রকল্প নিয়ে কটাক্ষ করলেন ভারতী ঘোষ।

মঙ্গলবার সকালে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার খেজুরিতে দলীয় পতাকা উত্তোলন করে ফেরার সময় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হতে হয়েছে বিজেপি কর্মীদের। সেই ঘটনা নিয়ে বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “পশ্চিমবাংলায় যেমন গণতন্ত্র নেই তেমন বিরোধীদের অস্তিত্ব যাতে না থাকে তা প্ল্যান করে আমাদের কোনো কাজই করতে দেওয়া হচ্ছে না।”

তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, “দুয়ারে দুয়ারে নয়, আগে নিজের দলকে ঠিক করুন নিজের দল ভেঙে যাচ্ছে কেউ থাকতে চাইছে না। দল থাকলে তখন দুয়ারে দুয়ারে যাবেন। এখন দল নেই তো দুয়ারে দুয়ারে যাওয়া কিসের। একা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১০ কোটি মানুষের বাড়িতে বাড়িতে যাবেন। আগে দলকে বোঝান দলকে ঠিক করুন।”