‘নন্দীগ্রামে সামনা-সামনি দেখা হবে’ মমতার চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে পাল্টা দিলেন শুভেন্দু

0

কলকাতা: আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মুখোমুখি লড়াই হতে চলেছে মমতা বনাম শুভেন্দুর। সোমবার এমনই ইঙ্গিত মিলল। কারণ তৃণমূলের ভারকেন্দ্র তথা বর্তমান বিজেপি নেতা শুভেন্দুর গড়ে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই সেখানে প্রার্থী হবেন বলে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন। অন্যদিকে সোমবারেই দক্ষিণ কলকাতায় মুখ্যমন্ত্রীর গড়ে দাঁড়িয়ে “পঞ্চাশ হাজার ভোটে মাননীয়াকে হারাবই” বলে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। একই সঙ্গে রাতে ট্যুইট করে শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন ২১-এর ময়দানে নন্দীগ্রামে সামনা-সামনি দেখা হবে৷

নির্বাচনের আগে রাজনৈতিক খেলা যে জমে উঠেছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। একের অপরকে বিনা লড়াইয়ে এক ইঞ্চি জমি নারাজ। দক্ষিণ কলকাতায় মুখ্যমন্ত্রীর গড়ে দাঁড়িয়ে হুঙ্কার দেওয়ার পরেই রাতে ট্যুইট করে শুভেন্দু লিখেছেন, “স্বাগতম দিদি। ২১ বছর সঙ্গে ছিলাম৷ এবার‌ নন্দীগ্রামে সামনা-সামনি দেখা হবে৷” বিজেপি নেতার এই ট্যুইটের পরে রাজনৈতিক মহল মনে করছেন যে মমতার ছোঁড়া ওপেন চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে শুভেন্দুও পাল্টা চ্যালেঞ্জ করে দিলেন। উল্লেখ্য, শুভেন্দু অধিকারী কালীঘাটের কাছ থেকে সভা করে জানিয়েছেন ‘হাফ লাখ’ ভোটে যদি মাননীয়াকে হারাতে না পারেন তবে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন।

প্রসঙ্গত, সোমবার বিকেলে দক্ষিণ কলকাতার রাসবিহারিতে দাঁড়িয়ে ফের একবার মুখ্যমন্ত্রী ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন। বেকারত্ব-সহ রাজ্যবাসীর যাবতীয় সমস্যার জন্য দায়ী করছেন রাজ্য সরকারকে। তবে নন্দিগ্রাম থেকে মমতার প্রতিপক্ষ হয়ে শুভেন্দু দাঁড়াবে নাকি অন্য কেউ সেটা ঠিক করবে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। এটা বোঝা যাচ্ছে যে শুভেন্দু ছাড়া মমতা নন্দীগ্রামকে নিজের হাতে রাখতে পারেন তা সোমবারের সভা থেকেই বুঝিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে শুভেন্দুও নিজেকে প্রমাণ করার মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছে। বলা বাহুল্য যে আর যাই হোক মমতা বনাম শুভেন্দুর লড়াই দেখতে মুখিয়ে রাজ্যবাসী।