চন্দননগরে রোড-শো থেকে তৃণমূলের বেসুরো নেতা প্রবীর ঘোষালকে বিজেপিতে যোগদানের বার্তা শুভেন্দু্র

0

হুগলি: এবার তৃণমূলের বেসুরো বিধায়ক প্রবীর ঘোষালকে চন্দননগরে রোড-শো থেকে কড়া বার্তা দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। প্রবীরের উদ্দেশ্যে শুভেন্দু বলেন, “মুখ না খুলে সিদ্ধান্ত নিন। কোম্পানির কর্মচারী হয়ে থাকবেন নাকি রাজনৈতিক সহকর্মী হিসেবে থাকবেন।” সঙ্গে যোগ করেন, “ভারত বিরোধী শক্তিকে যদি কেউ দমন করে থাকেন, তাহলে তাঁর নাম নরেন্দ্র মোদী। বিজেপি কর্মী হিসেবে নয়, ভারতবাসী হিসেবে বলছি, এমন শক্তিশালী প্রধানমন্ত্রী দেশ আগে দেখেনি।’

উল্লেখ্য বুধবার হুগলিরই চন্দননগরে লকেট চট্টোপাধ্যায় , অর্জুন সিং, স্বপন দাশগুপ্তকে, সঙ্গে নিয়ে রোড-শো করেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই রোড-শো থেকে বিধায়ক প্রবীর ঘোষালকে তিনি কার্যত দলত্যাগের বার্তা দিলেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। প্রসঙ্গত বিগত কয়েকদিন ধরেই বেসুরো শোনাচ্ছে হুগলির উত্তরপাড়ার বিধায়ক প্রবীর ঘোষালকে। তাই তাঁকে নিয়েও জল্পনা তুঙ্গে। সম্প্রতি দলের সাংগঠনিক রদবদল-সহ বিভিন্ন ইস্যুতে একের এক ‘বেসুরো’ মন্তব্য করেছেন তিনি।

স্থানীয় কানাইপুর এলাকায় রাস্তা সংস্কার নিয়ে বিধায়কের বিস্ফোরক অভিযোগ, “আমাকে ভোটে হারানোর জন্যই রাস্তা সারানো হচ্ছে না। আমি মুখ খোলার পর কেএমডিএ-র ইঞ্জিনিয়ার কানাইপুরের রাস্তা দেখতে এলে তাঁকে হুমকি দেন প্রধান আচ্ছেলাল যাদব। বিধায়কের নাম করে গালিগালাজ করেন।” পালটা জবাব দেন কানাইপুর পঞ্চায়েতের প্রধানও। তাঁর বক্তব্য, “বিধায়ক এলাকায় কোনও কাজ করেননি। উনি হচ্ছেন দলের গহনা বিধায়ক। কোনওদিন তৃণমূল কর্মী বা নেতা ছিলেন না।’