হিন্দু ধর্ম নিয়ে কল্যাণের কুরুচিকর মন্তব্যের বিরুদ্ধে থানায় পিটিশন দিল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ

0

চাপড়া: হিন্দুধর্মের মানুষ হয়েও সেই ধর্ম নিয়েই কুরচিকর মন্তব্য করেছিলেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। ব্যারাকপুরে দলীয় সভায় হাথরাসের প্রসঙ্গে কথা বলার সময় তৃণমূল সাংসদ বলেছিলেন, “সীতা রামের কাছে গিয়ে বলছে, ভাগ্যিস রাবণ আমাকে হরণ করে নিয়ে গিয়েছিল। আর যদি সেই সময় মাথায় লাল, গেরুয়া, হলুদ ফেট্টি বাঁধা তোমার চ্যালাগুলো হরণ করত তাহলে উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে ধর্ষিতা মেয়েটার মতোই আমার অবস্থা হত।”

তৃণমূল সাংসদের এই মন্তব্যের জেরেই ১১ জানুয়ারি হাওড়ার গোলবাড়ি থানায় কল্যাণের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিল বিজেপি। হিন্দু পরিষদের মতে, রাজনীতি ও ধর্ম এক নয়। তাই রাজনীতির জন্য ধর্ম নিয়ে বিদ্রূপ মেনে নেওয়া যাবে না। রাজনীতির স্বার্থে ধর্মে আঘাত দেওয়া ধর্ম বিরোধী। কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের এমন রুচিহীন মন্তব্যের জন্য চাপড়া থানায় পিটিশন জমা দেয় বিশ্ব হিন্দু পরিষদ।

ধর্মীয় ভাবাবেগের সাথে রাজনীতিকে মিলিয়ে দিয়েছেন তিনি। কল্যাণের মন্তব্য হিন্দু ধর্মের পাশাপাশি হিন্দু ধর্মের মানুষদেরকেও অপমান করেছে। হিন্দু পরিষদের অভিযোগ সাংসদের এমন কার্যকলাপ হিন্দু ধর্মকে অবমাননা করে। তাই কল্যানের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছে হিন্দু পরিষদ।