থাইল্যান্ডের ব্যাঙ্কে প্রতি মাসে অভিষেকের অ্যাকাউন্টে ৩৬ লক্ষ টাকা ঢুকেছে: ভাইপোর বিরুদ্ধে জোরালো অভিযোগ শুভেন্দুর

0

তমলুক: সোমবার হুগলি জেলার আরামবাগের পুরশুড়ায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা করেন। পুরশুড়ার সভায় মুখ্যমন্ত্রী বিজেপিদের আক্রমণ করতে ছাড়েননি। ২০১৬ সালের বিধানসভার আগে নারদা কাণ্ডে নাজেহাল হয়েছিল তৃণমূল। একাধিক ঘাসফুল শিবিরের নেতাদের প্রকাশ্যে দেখা যায় মোট অর্থের টাকা নিতে কিন্তু সেই সময় নারদা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রীকে অ্যাকশন নিতে বলেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোটের আগে রবিবার কুলতলির সভায় এমনটাই দাবি করলেন অভিষেক।

সোমবার ভাইপোর এই চ্যালেঞ্জের পাল্টা দিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি সরাসরি আক্রমণ করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে গুরুতর অভিযোগ প্রকাশ্যে আনেন। তিনি বলেন যে, “কাল তোলাবাজ ভাইপো কী কী বলেছে? বলেছে শুভেন্দু ঘুষখোর, মধুখোর আর বিশ্বাসঘাতক। আপনাকে বলি, মাননীয় তোলাবাজ ভাইপো। চিটিংবাজি শুরু ছোটবেলায়। সৌগত রায়, ববি হাকিম ও কাকলি ঘোষ দস্তিদারের কী হবে? ম্যাথুকে টাকা দিয়েছে কেডি সিং। কেডি সিংকে লাগিয়েছে তোলাবাজ ভাইপো।”

এরপর শুভেন্দু প্রকাশ্যে বলেন, “ম্যাডাম নারুলা কে? তোলাবাজ ভাইপো কী বলবেন? লালার টাকা কার অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে? থাইল্যান্ডের ব্যাঙ্কে টাকা ঢুকেছে। প্রতি মাসে ৩৬ লক্ষ টাকা করে ঢুকেছে রসিদও আছে। কে ম্যাডাম নারুলা? আপনারা জেনে যাবেন। মাননীয় তোলাবাজ ভাইপো আমার বাড়িতে পদ্মফুটতে শুরু করেছে। রাম নবমীর আগে বাকি ফুটে যাবে। ১৬ ফেব্রুয়ারির পর আপনার বাড়িতে পদ্ম ফোটাবো। আগামী দিনে বিজেপি জিতবে ও সরকার গড়বে।”