“দিদিও ভগবান রামের উপর ভরসা রাখেন”, ‘জয় শ্রীরাম’ বিতর্কে মমতাকে পরোক্ষ ভাবে সমর্থন শিবসেনার

0

কলকাতা: শনিবার সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিন উপলক্ষ্যে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল হলে বিশেষ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যপাল জয়দীপ ধনকড়। অনুষ্ঠানসূচী মতো সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু তাল কাটে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতা দিতে ওঠার সময়। মুখ্যমন্ত্রী বক্তৃতা দিতে মঞ্চের চেয়ার ছেড়ে পোডিয়ামের দিকে এগোতেই দর্শকাসন থেকে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান ওঠে। তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে পোডিয়াম ছাড়েন মুখ্যমন্ত্রী। মমতার ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগানে বিক্ষুদ্ধ হওয়া দেখে একাধিক রাজনীতিবিদ নানান বক্তব্য রাখছেন।

এবার এই বিষয়ে মুখ খুলল শিবসেনা। হিন্দুত্ববাদী দল হলেও পরোক্ষ ভাবে তৃণমূলকে সমর্থন করল মহারাষ্ট্রের দল শিবসেনা। তারা বলছে, ‘জয় শ্রীরাম’ শুনে রেগে না গিয়ে, মমতার নিজেরও ওই স্লোগান দেওয়া উচিত। সোমবার শিবসেনা মুখপাত্র সঞ্জয় রাউতকে বলতে শোনা যায়, “মমতা দিদিও ভগবান রামের উপর ভরসা রাখেন। রামের নামে স্লোগান কখনও ধর্মনিরপেক্ষতার জন্য বিপজ্জনক হতে পারে না। জয় শ্রীরাম স্লোগানে কারও বিরক্ত হওয়া উচিত নয়। আমরা মনে করি ভগবান রাম দেশের গর্ব। রাম কোনও রাজনৈতিক শক্তি নয়।”

যদিও শিবসেনার মুখপত্র ‘সামনা’তে বলা হয়েছে যে, “উত্তরপ্রদেশ, বিহারের মতো বাংলাতেও ধর্মীয় মেরুকরণের চেষ্টা করছে বিজেপি। এর জন্য কিছুটা হলেও বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও দায়ী। অতিরিক্ত ধর্মনিরপেক্ষতা আর মুসলিমদের প্রতি দুর্বলতা সংখ্যাগুরু হিন্দুদের বিরক্ত করছে।” সোমবার পুরশুড়ায় ছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা। সেই সভা থেকেই বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছিলেন, “কয়েকটা উগ্র,গর্ধ ধর্মান্ধ। আমায় দেশের প্রধানমন্ত্রীর সামনে টিজ করছে।”