ভিক্টোরিয়া কাণ্ডের পর সরকারি অনুষ্ঠানে আবারও একই মঞ্চে দেখা যেতে পারে মমতা-মোদীকে

0

কলকাতা: ২৩ জানুয়ারি, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মজয়ন্তীতে, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের অনুষ্ঠানে মুখোমুখি হন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তুবে সেই সাক্ষাৎ যে খুব একটা সুখকর ছিল না তা রাজ্যবাসীর সকলের জানা। সেই কান্দের পর ১৫ দিএর মাথায় আবারও মুখমুখি হতে পারেন মোদী মমতা। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি হলদিয়ায় সরকারি কর্মসূচিতে যোগ দিতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে।

প্রধানমন্ত্রী মূলত রাজ্যে আসছেন হলদিয়ায় ১১০০ কোটির এলপিজি টার্মিনালের উদ্বোধন করতে। সেই সঙ্গে তিনি দুটি টি সরকারি প্রকল্পের সূচনা এবং একটি প্রকল্পের শিলান্যাস করবেন। পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান জানিয়েছেন, “উজ্জ্বলা যোজনার আওতায় যাতে নিরবিচ্ছিন্ন পরিষেবা প্রদান করা সম্ভব হয় তার জন্য ১১০০ কোটি টাকা খরচ করে এলপিজি টার্মিনাল বানানো হয়েছে হলদিয়ায়। সেটি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়াও আত্মনির্ভর ভারতের লক্ষ্যে লুব্রিকেন্ট বেস অয়েল বানানোর জন্য হলদিয়া পেট্রোকেমিক্যালে ১০০০ কোটি টাকার বেশি ব্যয়ে গড়ে উঠেছে কারখানা। তার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হবে। শুধু তাই নয় মিনিস্ট্রি অফ রোড ট্রান্সপোর্ট আওতায় একটি রাস্তার প্রকল্পও বাস্তবায়িত হবে। পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশের ফুলপুর থেকে প্রধানমন্ত্রী উরজা গঙ্গা যোজনার আওতায় পাইপলাইনের মাধ্যমে গ্যাসের সরবরাহ করা হবে। ২৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি সেই প্রকল্পেরও উদ্বোধন করবেন মোদীজি।” শুধু মমতা নয় এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে এবং সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানকারী শুভেন্দু অধিকারীর ভাই দিব্যেন্দু অধিকারীকে যিনি এখনও সেখানকার তৃণমূল সাংসদ।

তবে যাই হোক ভিক্টোরিয়া কাণ্ডের পর মোদীর অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ মমতা গ্রহণ করবেন কিনা সেটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন। অন্য দিকে রাজনৈতিক মহল মনে করছে সেই অনুষ্ঠানে এখনও তৃণমূলে থাকা দিব্যেন্দুর আমন্ত্রণ পাওয়া বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ শুভেন্দু বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরে তারই ভাই কাঁথি পুরসভার অপসারিত প্রশাসক সৌম্যেন্দু অধিকারীও বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। এখন শুধু বাকি দিব্যেন্দুই। প্রসঙ্গত, ২৩ জানুয়ারি, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মজয়ন্তীতে, ভিক্টোরিয়ায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বক্তৃতা দিতে ওঠার সময় জয় শ্রীরাম স্লোগান তোলে উপস্থিত একাংশ। সেই সুনেই কার্যত রেগে যান মুখ্যমন্ত্রী। সেই অনুষ্ঠানে একটিও বাক্য খরচ না করেই স্টেজ থেকে নেমে যান মমতা। তা নিয়েই জল অনেক দূর গড়িয়েছে। সেই ঘটনার পর আবারও হলদিয়ায় মোদীর মুখোমুখি মমতা হন কিনা সেটাই দেখার।