বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যে পর্যবেক্ষক নিয়োগ ওয়াইসির দলের

0

কলকাতা: বঙ্গে এখনই বেজে গিয়েছে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের দামামা। এপ্রিল-মে মাসে পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি তুঙ্গে। ঠিক এই কারণেই আদাজল খেয়ে মাঠে নেমে পড়েছে রাজনৈতিক শীর্ষ নেতৃত্বরা। এরই মধ্যে দিনে দিনে নয়া মোড় নিচ্ছে বাংলার রাজনীতি। ফুরফুরা শরীফ এর পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী তাঁর নতুন দল ঘোষণা করেন। ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট নামে নতুন দল তৈরী করলেন তিনি যার চেয়ারম্যান করা হয় নৌসাদ সিদ্দিকীকে। ময়দানে নেমেছেন এআইএমআইএমের সভাপতি আসাদউদ্দিন ওয়াইসি।

বিহারের ৫ টি আসন জয়ের পরে, এইআইএমআইমের আত্মবিশ্বাস তাৎপর্যপূর্ণভাবে বেড়েছে। বিহার নির্বাচনের ফলাফল আসার সাথে সাথে ওয়াইসি ঘোষণা করেছিলেন যে তিনি পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচনেও প্রার্থী হবেন। সেই সঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের জন্য রাজ্যে ৮ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করল মিম। দলের তরফে এক বিবৃতিতে আজ একথা জানান হয়েছে। রাজ্যকে মোট চার জোনে ভাগ করে প্রতিটি জোনে দুই জন করে পর্যবেক্ষক রাখা হয়েছে। কলকাতা ও দক্ষিণবঙ্গ (হাওড়া, হুগলি, দুই মেদিনীপুর, দুই বর্ধমান, দুই ২৪ পরগনা) দায়িত্ব রয়েছে জাফর হুসেন মেরাজ, রিয়াজ উল হাসান এফেন্দি।

একই সঙ্গে মুর্শিদাবাদ-বীরভূম-নদিয়ার দায়িত্বে থাকবেন আক্তার উল ইমান, আদিল হাসান। উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর-কোচবিহার-আলিপুরদুয়ার পর্যবেক্ষক শাহানওয়াজ, ইজহার আসিফ। মালদহের পর্যবেক্ষক রুকুনুদ্দিন আহমেদ এবং আনজার নইমি। রাজনৈতিক মহলের মতে ওয়াইসি নির্বাচনে লড়লে বিজেপির লাভ হবে, ক্ষতি হবে তৃণমূলের। মমতার দলের শক্তিই হল সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ভোট। পশ্চিমবঙ্গে মুসলিমদের জনসংখ্যা ৩০ শতাংশেরও বেশি। রাজ্যের ২৯৪ টির মধ্যে ১০০ টিরও বেশি আসনে মুসলিম ভোটাররা নির্ধারিত অবস্থানে রয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে ওয়াইসির পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণায় তৃণমূল কংগ্রেস, কংগ্রেস এবং বামদের পক্ষে ঝামেলা হওয়া স্বাভাবিক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here