“তোমাদের ক্ষমতা নেই মমতাকে হারানোর” মালদহ থেকে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন মুখ্যমন্ত্রী

0

মালদা: আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে তৃতীয় বারের জন্য ক্ষমতা দখলের জন্য মরিয়া হয়ে রয়েছে শাসক দল তৃণমূল। তাই বিজেপিকে হারাতে মাঠে নেমেছে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ মালদহে সভা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই মালাদাতেই শাসকদলকে খালি হাতে ফিরতে হয়েছিল ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে। তাই উত্তরবঙ্গের এই জেলার উপরে বিশেষ নজর দিয়েছেন। সেই সঙ্গে মমতা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, মমতাকে হারানোর ক্ষমতা বিজেপির নেই।

গত ১০ বছরের ক্ষতিয়ান তুলে ধরে মালদহের জনসভা থেকে বিজেপিকে তুলোধনা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “মমতাকে হারানোর ক্ষমতা তোমাদের নেই। কারণ মমতা একা নয়, মমতার সঙ্গে মানুষ আছে।” একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী হুঙ্কার দিয়ে বলেছেন, “বাংলায় ওঁরা বারবার কেন আসছে জানেন? কারণ, ওঁরা দিল্লি থেকে বাংলাকে শাসন করতে চায়। দিল্লি থেকে বসে দাঙ্গা বাঁধাবে। এনপিআর আর এনআরসি করবে। তাই বিজেপিকে একটা ভোটও দেবেন না। ২০২১-এ তৃণমূল আরও বেশি সংখ্যক আসন নিয়ে ফিরে আসবে। বাংলায় জিতব, এরপর ভারতবর্ষটাকেও দেখব।”

তবে মালদহে খালি হাতে ফেরার জন্য আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন। মমতা বলেছেন, “মালদহে কি আমরা কিছু পাব না? ৩০ বছর ধরে মালদহে আসছি। ভোটের আগে সব সমীকরণ পালটে যায়। দুঃখ হয়, মালদহে আমাকে শূন্য হাতে ফেরালে।” মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, “সারা দেশে আর একটাও সরকার দেখাতে পারবেন না, যারা বিনা পয়সায় রেশন দেয়। কিন্তু আমরা দিই। আমরাই একমাত্র। BJP-র মধ্য প্রদেশ, উত্তর প্রদেশ, এরা কেউ দেয় না। তাই বিনামূল্যে রেশন পেতে হলে তৃণমূলকেই ভোট দিন। বিজেপি বলবে, এটা করব-ওটা করব। কিন্তু ভোট মিটে গেলেই সব হাওয়া। কিন্তু আমরা যা বলব, তাই করব।”

আক্ষেপ সত্ত্বেও কিছুটা প্রত্যয়ী মমতা। বলে দিচ্ছেন,”এবারে কিন্তু শূন্য হাতে ফিরব না। আপনাদের আশীর্বাদ, দোয়া সঙ্গে নিয়েই যাব।” আসলে আসন্ন নির্বাচনে ‘ভোট কাটা’ নিয়েই শঙ্কিত শাসক দল। ২০১৯-এর লোকসভায় দেখা গিয়েছে কংগ্রেস-তৃণমূলের ভোট ভাগাভাগির অঙ্কে মালদহের একটি আসন দখল করে নিয়েছে বিজেপি। এদিন ভোটারদের উদ্দেশে তাঁর সতর্কবার্তা, “কংগ্রেস-সিপিএমকে ভোট দেবেন না। অনেক হয়েছে। ভোট ভাগাভাগিতে যাবেন না। সিপিএমকে দেবেন না, অনেক দিয়েছেন। সিপিএম-কংগ্রেস বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। মনে রাখবেন তৃণমূল কংগ্রেস মরে যাবে কিন্তু বিজেপির কাছে আত্মসমর্পণ করবে না।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here