প্রার্থী পছন্দ নয়! গেরুয়া শিবিরে ভাঙন ধরিয়ে দল ছাড়লেন প্রায় ৫০০ কর্মী-সমর্থক

0

পার্থ খাঁড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর: শনিবার প্রথম দুই দফার নির্বাচনের জন্য বিজেপির প্রার্থী তালিকা ঘোষিত হয়েছে। তারপর থেকেই বিক্ষিপ্তভাবে বিভিন্ন এলাকায় প্রার্থীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ-বিক্ষোভের কথা শোনা যাচ্ছিল! বিশেষত জঙ্গলমহল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কয়েকটি আসনের ক্ষেত্রে প্রার্থীর বিরুদ্ধ গোষ্ঠির কর্মী-সমর্থকেরা রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন। সেই ক্ষোভ থেকে ভাঙন! শালবনী বিধানসভার বেশ কয়েকজন বিজেপি নেতা ঘোষিত প্রার্থী রাজীব কুন্ডুর বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে বিক্ষোভ দেখিয়ে সমন্বয় মঞ্চ তৈরি করে নতুন প্রার্থী দেওয়ার ঘোষণা করলেন।

রবিবার থেকেই সেই প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার ইঙ্গিত দিলেন। একইভাবে, গড়বেতা, মেদিনীপুর ও খড়গপুর গ্রামীণের ক্ষেত্রেও তারা সমন্বয় মঞ্চের প্রার্থীকে সমর্থন করার কথা ঘোষণা করলেন। বিজেপির এই বিক্ষুব্ধ নেতাদের পক্ষ থেকে সাংবাদিক সম্মেলন করা হয়। তাদের পক্ষ থেকে পশুপতি দেবসিংহ জানান, “শালবনী এলাকার সাধারণ মানুষ বিজেপির ঘোষিত প্রার্থীর পক্ষে নেই। তাই তাঁরা দল ছাড়ছেন।” প্রসঙ্গত, শনিবার বিজেপির পক্ষ থেকে যে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে তাতে শালবনী বিধানসভা কেন্দ্রের মনোনীত প্রার্থী হলেন রাজীব কুন্ডু।

ঘোষিত এই প্রার্থীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়ে দল ছাড়লেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ওবিসি মোর্চার সাধারণ সম্পাদক পশুপতি দেব সিংহ, রাজ‍্য কমিটির সদস্য ধীমান কোলে, রাজ‍্য ওবিসি মোর্চার সদস্য নিরাপদ মাহাত, জেলা নেতা সুনীল মাহাত, শালবনী উত্তর মণ্ডল সভাপতি সজল মাহাত, শালবনী ব্লকের ৬ নং অঞ্চলের উপপ্রধান বিমান মাহাত, পিংবনী অঞ্চলের প্রধান বিশ্বজিৎ মাহাত সহ প্রায় ৫০০ কর্মী সমর্থক। এদিন শালবনী ব্লকের জয়পুরে এক বৈঠক শেষে, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তাঁরা সমন্বয় মঞ্চের প্রার্থীদের সমর্থন করবেন বলে জানিয়েছেন। এই বৈঠকে বিক্ষুব্ধ বিজেপি নেতাদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন, সমাজসেবী প্রদীপ লোধা, হিন্দু জাগরণ মঞ্চের ঋজু কারক, তপন মাল, পলাশ দুলে ও কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের কয়েকজন নেতৃত্ব।

সূত্রের খবর, এই বিক্ষুব্ধ নেতাদের মধ্যে থেকে বেশ কয়েকজনকে প্রার্থী করতে পারে সমন্বয় মঞ্চ। বিক্ষুব্ধ নেতাদের মধ্যে বিমান মাহাত কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই যুক্ত রয়েছেন বলে সূত্রের খবর। ঝাড়গ্রামের অবস্থান বিক্ষোভ মঞ্চে গিয়ে অনশনেও যোগ দিয়েছিলেন বলে জানা যায়। উল্লেখ্য যে, এই সমন্বয় মঞ্চে কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতৃত্বরা ছাড়াও বিক্ষুব্ধ বিজেপি সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও পিছিয়ে পড়া লোধা শবর, আদিবাসী এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন নেতৃত্বরাও আছেন বলে সমন্বয় মঞ্চের তরফে জানানো হয়েছে।