নন্দীগ্রামে জেতা দুই দলের কাছেই সম্মান রক্ষার, শুভেন্দুর হয়ে প্রচারে ফের দু’দিন বঙ্গে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

0

কলকাতা: বঙ্গে শুরু হয়ে গিয়েছে ২০২১ এর হাই ভোল্টেজ নির্বাচনী প্রচার। জোর কদমে লড়াই চলছে ঘাসফুল ও পদ্মের। ক্ষমতা দখল ও ক্ষমতা দখলের লড়াই এখন জারি জয়েছে ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে। রবিবারেরই বিগ্রেডে সভা করে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এবারের নির্বাচনে কে ক্ষমতা দখল করবে সেই দিকে চোখ তো রয়েছেই সেই সঙ্গে নজর রয়েছে নন্দীগ্রামের দিকে। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে সম্মুখ সমরে নামবেন মমতা-শুভেন্দু। বিজেপি-তৃণমূল দুই দলের কাছেই এই লড়াই হল সম্মান রক্ষার। এই কারণে ১৫ দিনের ব্যবধানে আবারও বঙ্গে আসবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

বিজেপি সূত্রে খবর রয়েছে প্রধানমন্ত্রী ১৮ মার্চ পুরুলিয়া এবং ২০ মার্চ কাঁথিতে জনসভা করবেন। শুভেন্দুকে বিপুল ভোটে জয়ী করাই হল কাঁথিতে মোদীর জনসভার লক্ষ্য। এমনটাই মনে করছেন অনেকে। কারণ এই জায়গা নিয়েই এখন রাজনীতিতে আলোচনা তুঙ্গে। কে ছিনিয়ে নেবে জয় সেই নিয়ে রয়েছে টানটান উত্তেজনা। রাজনৈতিক সমস্ত দলই জানে নন্দীগ্রাম থেকে যদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একবার জিতে যায় তবে তৃতীয় বারের জন্য ক্ষমতায় ফেরা থেকে শাসকদলকে কেউ রুখতে পারবে না। সেই কারণে মমতাকে হারাতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। ব্রিগেডের জনসভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, “পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিশ্বাস ভেঙেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সবাই আপনাকে দিদি ভেবেছিল কিন্তু আপনি একজনেরই পিসি থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমরা শুধুমাত্র ক্ষমতাবদল চাই না, বাংলায় উন্নয়নকেন্দ্রিক সরকার গড়তে চাই। অনেকগুলো বছর নষ্ট হয়ে গিয়েছে। আর সময় নষ্ট করা যাবে না। আসল পরিবর্তন আনতে হবে। বাংলার মানুষকে মনে রাখতে হবে, কী ভাবে বার বার তাঁদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে।”

বলা ভালো যে নির্বাচনের দিন ঘোষণা হওয়ার আগেই বিজেপি সূত্রে খবর ছিল যে বাংলার শাসনভার নিজেদের হাতে নেওয়ার জন্য নির্বাচনী নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর বঙ্গে ১৫ টি করে সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী ও অমিত শাহ। তৃণমূল যেমন চমক দিচ্ছে তেমনি বিজেপিও পিছিয়ে নেই। রবিবারের সবায় বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। এমনকি এখনও বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন একাধিক তৃণমূল নেতা। ভোট যুদ্ধে কে জিতবে সেই অঙ্ক কষা এখন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের কাছে যে খুব কঠিন হয়ে উঠছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।