কয়লা পাঁচার কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত লালার জামিনের আবেদন খারিজ করলো সুপ্রিমকোর্ট

0
SUPREME COURT OF INDIA

কলকাতা: কয়লা পাচার কাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালা যুক্ত আছে। আন্ত:রাজ্য পাচার সহ একাধিক রাজ্যের সঙ্গে ছড়িয়ে আছে এই নেটওয়ার্ক। এছাড়াও এই কয়লা পাচারের যোগ পাওয়া গিয়েছে উত্তর প্রদেশেও। মূলত এই অভিযোগের যুক্তিতেই আজ লালার জামিনের আবেদন খারিজ করলো সুপ্রিমকোর্ট। অর্থাৎ শীর্ষ আদালতেও রেহাই পেলনা লালা। পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে আগামী সোমবার।

আজ শীর্ষ আদালতে লালার তরফে অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন করেছিলেন মুকুল রহতাগি। অপর দিকে এই আবেদনের বিরোধিতা করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। এই প্রসেঙ্গে সিবিআইর দাখিল করা হলফনামার কথা এদিন তুলে ধরেন তুষার মেহতা। একই সাথে এদিন প্রাসঙ্গিকতার ব্যাখ্যা করা হয় ইস্টার্ন রেলের তরফে ও সিবিআই কে দিয়ে তদন্তের কথা। প্রসঙ্গত, কলকাতা হাকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতে মামলা করেছিল কয়লা পাচার কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালা। কয়লা কাণ্ডের তদন্তে সিবিআই এর এক্তিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে সে।তার বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা যে এফ আই আর দায়ের করেছিলেন সেই এফ আই আর কে খারিজের আর্জি জানিয়ে কলকাতা হাকোর্টের দ্বারস্থ হয় লালা।কিন্তু তার সেই আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয় সিঙ্গেল বেঞ্চের তরফে।

আদালতের পক্ষে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয় সিবিআই কয়লা পাচার কান্ড নিয়ে তদন্ত চালিয়ে যাওয়াতে কোনো রকম বাধা নেই। তবে যে জায়গা রেলের আওতাধিন নয় সেখানে তদন্তের জন্য রাজ্যের অনুমতি নেওয়া বাধ্যতামূলক হবে। তবে রাজ্যের এক্তিয়ার যুক্ত এলাকায় থাকা কোনো ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রয়োজন হয় সেক্ষেত্রে সমন পাঠানোর অনুমতি লাগবেনা। এই রায়ের পরেই মামলা গড়ায় হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে।সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়ের স্থগিতাদেশ জারি করে সিবিআই কে রাজ্যের এক্তিয়ার যুক্ত এলাকায় তল্লাশির অনুমতি দেয় ডিভিশন বেঞ্চ।সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করেই সুপ্রিম কোর্টে মামলা করে কয়লা পাচার কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত লালা সেই সাথে তার বিরুদ্ধে করা এফ আই আর খারিজের ও আবেদন করে সে কিন্তু শীর্ষ আদালত তার আবেদন কে খারিজ করে দেন।