নন্দীগ্রাম আন্দোলনের শরিক ছিলাম, তারা আমায় ভোট দেবে: মনোনয়ন পত্র জমা দিয়ে আত্মবিশ্বাসী মুখ্যমন্ত্রী

0

হলদিয়া: বঙ্গ রাজনীতির আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এখন নন্দীগ্রাম। নন্দীগ্রাম থেকে একুশের প্রার্থী খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যবাসী নন্দীগ্রামেই দেখবে একদা মমতার বিশ্বস্ত সৈনিক শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর শ্বাসরুদ্ধ লড়াই। সেই কারণে আজ হলদিয়ায় নন্দীগ্রাম আসনের তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন রেয়াপাড়ায় শিব মন্দিরে পুজো দিয়ে রোড শো করেন মুখ্যমন্ত্রী। একই সঙ্গে নন্দীগ্রামে জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী শোনায় তাঁকে। মমতা বলেন, “আমি বহিরাগত হলে তো মুখ্যমন্ত্রীই হতে পারতাম না। তুমি নন্দীগ্রামের লোক, আমি বীরভূমের লোক। তফাৎ শুধু এটুকুই। নন্দীগ্রাম আমার কাছে নতুন নয়। নন্দীগ্রাম আন্দোলনের শরিক ছিলাম। নন্দীগ্রামের আরেক নাম সংগ্রাম।”

তিনি আরও বলেন, “নন্দীগ্রাম আমায় ভোট দেবে। নন্দীগ্রামের মানুষকে স্যালুট। আমার মনোনয়নে চারজন প্রস্তাবক রয়েছেন। শেখ সুফিয়ান আমার ইলেকশন এজেন্ট।” লড়াই তো হবেই তৃণমূল বিজেপির মধ্যে কিন্তু তার থেকেও নন্দীগ্রামে মমতা-শুভেন্দুর সম্মুখ সমর দেখতে অধীর আগ্রহে বঙ্গবাসী। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের ধারণা, একুশের হাই ভোল্টেজ এই নির্বাচনে নিজের পুরানো ‘রণভূমি’ তথা জমি ‘আন্দোলনের পীঠস্থান’ নন্দীগ্রামকে বেছে নেওয়া হল দুদে রাজনীতিবিদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক কৌশল।