পায়ের ছোট রুখতে পারবে না নির্বাচনী প্রচার, আগামী সপ্তাহ থেকেই জেলায় জেলায় ভোট প্রচারে যাবেন মমতা

0

কলকাতা: গত বুধবার মুখ্যমন্ত্রী নন্দীগ্রামের তৃণমূল প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর সন্ধের দিকে বিরুলিয়ার এক মন্দিরে দর্শনে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই অত্যন্ত জখম হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তাঁর শারীরিক অবস্থার বেশ কিছুটা উন্নতি হয়েছে বলে খবর এসএসকেএম তরফে। রাতে ভালো ঘুম হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন তিনি। এদিন সকালে শারীরিক পরীক্ষায় দেখা যায় পায়ের ফোলা কিছুটা কমেছে। এছাড়া ঘার,হাত ও কব্জির ব্যথাও কিছুটা নিরাময় হয়েছে। হাস্পাতাল থেকেই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন পায়ে ব্যাথা হলেও রোখা যাবে না তাঁকে। প্রয়োজনে তিনি হুইল চেয়ারে বসে ভোটের প্রচার করবেন। আগামী সপ্তাহ থেকেই আবারও তিনি রাজনীতির ময়দানে ফিরবেন বলেই খবর রয়েছে।

আগামী সপ্তাহ থেকেই আবার মুখ্যমন্ত্রী যোগ দিতে পারেন দলীয় কর্মসূচিতে। পায়ে ছোট গাগার কারণে চলতি সপ্তাহে যাবতীয় কর্মসূচী বাতিল করতে হয়েছে মমতাকে। মুখ্যমন্ত্রীর আগামীকাল অর্থাৎ ১৩ তারিখ থেকে ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, মেদিনীপুরে পর পর জনসভা করার কথা ছিল। তবে সেটা হবে না পায়ে চোট লাগার কারণে। তবে দমে যাওয়ার পাত্রী তিনি নন। এসএসকেএম-এর বিছানায় শুয়েই বলেছেন, ”পায়ে ব্যথা আছে। মাথায়ও যন্ত্রণা। কাল খুব লেগেছিল। আমি প্রণাম করার সময়ে ভিড়ে ধাক্কাধাক্কিতে আমার চোট লাগে। ক’দিন হয়ত হুইল চেয়ারে ঘুরব। হুইল চেয়ারে বসেই কর্মসূচিতে থাকব। আপানারা সংযত থাকুন, শান্ত থাকুন।”

আজ শুক্রবার সকালে হাসপাতাল সুত্রে খবর মুখ্যমন্ত্রীর শারীরিক পরীক্ষা করে জানানো হয়েছে তাঁর ব্যথা ও ফোলা আজ কিছুটা কমেছে।তিনি নিজেও চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেছেন বলেও জানা গেছে। তবে কবে মুখ্যমন্ত্রীকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে মেডিক্যাল বোর্ডের আলোচনায়।মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ৬সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন হয়েছে। এই মেডিক্যাল বোর্ডে রয়েছেন এসএসকেএম এর অধ্যক্ষ মনিময় বন্দোপাধ্যায় এবং ৩ বিভাগীয় প্রধান এছাড়া আছেন আরও ৫ বিশেষজ্ঞ।আরও রয়েছেন অর্থোপেডিক,নিউরো মেডিসিন ,নিউরো সার্জারি, এন্ডক্রিনোলজি,জেনারেল মেডিসিন ও অ্যানাসথেসিয়া বিভাগের বিশেষজ্ঞরা। আজ সারাদিন মুখ্যমন্ত্রীর স্বাস্থের দিকে নজর রাখবেন বিশেষজ্ঞরা । তার পরে হয়তো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কবে ছাড়া হবে হাসপাতাল থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে।