হেলিকপ্টার বিভ্রাট নাকি সভাস্থল না ভরায় ঝাড়গ্রাম এলেন না! ভার্চুয়ালি ভাষণ দিলেন অমিত শাহ

0

পার্থ খাঁড়া, ঝাড়গ্রাম: সোমবার ঝাড়গ্রামের জামদা সার্কাস ময়দানে অমিত শাহের সভা হবে বলে আগে থেকেই ঠিক ছিল। তার জন্য রবিবার রাতেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পৌঁছে যান খড়গপুরে। শাহের সভা হবে তাই মত সাজো সাজো রব তুলেছিল বিজেপি। কর্মীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা ছিল চরমে, কিন্তু বেলা বাড়ার সাথে সাথে সেই উৎসাহ পরিণত হয় হতাশায়। সভা শুরুর নির্ধারিত সময় পর্যন্ত চেষ্টা হয় লোক আনার, অন্তত চেয়ারগুলো যাতে ভরে ওঠে সেই ব্যবস্থা করার আপ্রাণ চেষ্টা করে বিজেপি। কিন্তু নির্ধারিত সময় গড়িয়ে গেলেও সভাস্থল ভরেনি।

সাথে সাথেই বিজেপির পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় শাহের কপ্টারে যান্ত্রিক ত্রুটি হয়েছে তাই যেতে পারছেন না তিনি। বক্তব্য রাখবেন ভার্চুয়ালি। এদিকে ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখার সময় অমিত শাহ বলেন, “হেলিকপ্টার বিভ্রাটের কারণে ঝাড়গ্রাম যেতে পারলাম না। তবে কথা দিচ্ছি ফের ঝাড়গ্রামে যাবো।” তিনি প্রতিশ্রুতি দেন বিজেপি ক্ষমতায় এলে ঝাড়গ্রামে বিশ্ববিদ্যালয় বানাবেন। জানান, আদিবাসীদের উন্নয়েন ১০০ কোটির তহবিল গড়বে বিজেপি সরকার, তৈরি হবে রেসিডেনশিয়াল হস্টেল। মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সরকারকে আক্রমণ করে অমিত শাহ বলেন, “তৃণমূলের আমলে বাংলা পাতালে পৌঁছে গিয়েছে।”

তাঁর কথায়, “বাংলা এক সময় দেশের উন্নয়নে পথ দেখাত, কিন্তু গত ১০ বছরে তৃণমূল বাংলাকে পাতালে পৌঁছে দিয়েছে।” বিজেপির অভিযোগ তৃণমূল চক্রান্ত করে সভায় লোক আসতে দেয়নি, নাহলে ভরে যেত সভাস্থল। যদিও জামদা সার্কাস ময়দান বড় হলেও সভার জন্য মাঠটি ছোট করে ঘেরা হয়েছিল। কিন্তু বেলা বাড়লেও লোকজন সভাস্থলে এসে জড়ো না হওয়ায়, টনক নড়ে বিজেপির। তাঁরা অভিযোগ করে, সভাস্থল থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে গাড়ি দাঁড় করিয়ে দেওয়া হচ্ছে। অতটা রাস্তা হেঁটে আসতে সমস্যায় পড়ছেন অনেকে তাই আসতে পারেননি সভাস্থলে।