মুখ্যমন্ত্রীর উপর হামলাই হয়েছে, এই কথাতেই অনড় অভিষেক

0

মেদিনীপুর: গত বুধবার নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জখম হওয়ার ঘটনাকে ঘিরে আবারও বিজেপিকে নিশানা করে করলেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।তিনি স্পষ্ট ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিলেন,কোনো দুর্ঘটনা নয় সম্পূর্ণ পরিকল্পনামাফিক আক্রমণ করা হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীকে। অর্থাৎ হামলার তত্ত্বেই অনড় অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। তিনি নিশানা করলেন বিজেপির মোদি-অমিত শাহর উদ্দেশ্যেই। আজ সোমবার দুপুর দেড়টা নাগাদ পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতনে সভা করেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখান থেকেই একাধিক বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপি নেতাদের আক্রমণ করেন অভিষেক।

আজ অমিত শাহের ঝাড়গ্রামে না যাওয়াকে বিদ্রুপ করে তিনি বলেন, “ওই মাঠে যে চার-পাঁচজন লোক এসেছিলেন, তার থেকে বেশি লোক চায়ের দোকানের আড্ডায় থাকেন।” কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে তিনি বহিরাগতদের ‘নায়ক’ বলে কটাক্ষ করেন। এরপরই অভিষেক আরও বলেন, “এক মহিলার উপর হামলা করতে গিয়ে চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়ে যাবে একটা দল।” অর্থাৎ তার স্পষ্ট ইঙ্গিত করেন তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর হামলাই হয়েছিল সেইদিন এমন অভিযোগই করেন তিনি।

এছাড়া এদিন সভা থেকে অভিষেক নিশানা করেন তৃণমূল ত্যাগী শুভেন্দু অধিকারীকেও। এর আগে বিজেপি নেতাকে কটাক্ষ করতে গিয়ে মেদিনীপুরবাসীদের ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে কটাক্ষ করে ছিলেন তিনি কিন্তু এদিন অত্যন্ত সাবধানী হয়ে শুভেন্দুকে আক্রমণ করেন অভিষেক। তিনি বলেন, “ঈশ্বরচন্দ্রের মেদিনীপুরের মানুষ বিশ্বাসঘাতকতা জানেন না। শুধু এখানকার একজনই বিশ্বাসঘাতক।”

প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী জখম হওয়ার দিন নন্দীগ্রাম থেকেই চার-পাঁচজনের বিরুদ্ধে ধাক্কা দেওয়ার অভিযোগ করেছিলেন তিনি। কিন্তু তার পরে আর এহেন অভিযোগ শোনা যায়নি তাঁর গলায়। উলটে তিনি বলেছিলেন, “আমি গাড়ির বনেটে বসে প্রণাম করার সময়ে ভিড়ে ধাক্কাধাক্কিতে চোট লাগে।”তার এই চোট লাগার ঘটনার জল গড়িয়েছে নির্বাচন কমিশন পর্যন্ত। ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশন পক্ষে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, নন্দীগ্রামের বিরুলিয়ায় মুখ্যমন্ত্রীকে কোনও হামলার ঘটনা ঘটেনি এবং ওই দিনের ঘটনার জেরে পুলিশের কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগ ও অপসারণ করা হয়েছে। রাজ্যের নিরাপত্তা অধিকর্তা বিবেক সহায়, পূর্ব মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার ও জেলাশাসককে। তবে মুখ্যমন্ত্রীর উপরে যে হামলাই হয়েছে, সেই তত্ত্বে এখনও অনড় অভিষেক।