“বিহার বিনামূল্যে করোনার টিকা পায়নি”, গোপীবল্লভপুরে নির্বাচনী সভা থেকে মোদীকে বিঁধলেন মমতা

0

গোপীবল্লভপুর: রাজ্য ভোট। অন্যদিকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ হানা দিয়েছে মহারাষ্ট্রে। বেশ কিছু রাজ্যেও করোনার গ্রাফ উর্ধমুখী। কিন্তু বাংলায় ভোট নিয়ে রাজনৈতিক উত্তাপও চড়ছে তড়তড়িয়ে। এই পরিস্থিতিতে ঝাড়গ্রামে গোপীবল্লভপুরে নির্বাচনী সভা থেকে করোনার ভ্যাকসিনের টিকাকরণ প্রক্রিয়া নিয়ে ফের একবার কেন্দ্র সরকারকে বিঁধলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উসকে দিলেন, বিহারের নির্বাচনের সময় বিহারকে বিনা মূল্যে করোনার টিক দেওয়ার প্রতিশ্রুতিকেও। তৃণমূল সুপ্রিমোর দাবি, বিহারের নির্বাচনের আগে বিনামূল্যে টিকাকরণের প্রতিশ্রুতি দিলেও তা আজও পূরণ করেনি বিজেপি

বুধবার ঝাড়গ্রামে গোপীবল্লভপুরে হুইলচেয়ারে করে নির্বাচনী সভা করতে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, “নির্বাচনের আগে সকলের জন্য টিকা চেয়েছিলাম। বলেছিলাম, আমি টাকা দিচ্ছি। কিন্তু মোদিজি আমার কথা শুনলেন না। উনি শুধু বড় বড় ভাষণ দেন। কিন্তু কোভিড রুখতে গণটিকাকরণের ব্যবস্থা করলেন না।” এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বিজেপিকে ‘মিথ্যাবাদীর দল’ বলেও কটাক্ষ করলেন মমতা। তুলে আনলেন বিহারে বিজেপির ভ্যাকসিন প্রতিশ্রুতির কথাও।

গত বছরের শেষের দিকে বিহারের নির্বাচনের আগে বিনামূল্যে টিকাকরণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিজেপি। বলেছিল, “বিহারে বিজেপি ক্ষমতায় এলে সকলকে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।” মমতার অভিযোগ, “সেই কথা রাখেনি বিজেপি।” এখনও বিহারে বিনামূল্য টিকা দেওয়া হয়নি বলেও জানালেন তৃণমূল নেত্রী। এর পরই জঙ্গলমহলবাসীকে মমতার সতর্কবার্তা, বিজেপিকে বিশ্বাস করবেন না।

এদিনের সভা থেকে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে লোকসভা নির্বাচনে ভোট লুঠের অভিযোগ করলেন তৃণমূল নেত্রী। তাঁর কথায়, “গত লোকসভা নির্বাচনে দুটি কেন্দ্রে ভোট লুঠ করেছিল বিজেপি। এবারও ট্রেনে করে বহিরাগতদের নিয়ে আসছে তারা। স্টেশনে রাখা হচ্ছে বহিরাগতদের। তারা নির্বাচনের সময় ভোট লুঠ করবে।” এই রিগিং রোখার উপায়ও বাতলে দিলেন মমতা। তাঁর কথায়, “ভোট লুঠ হলে হাতা-খুন্তি নিয়ে রুখে দাঁড়ান মা-বোনেরা। তাহলেই তারা পালাবে।”