আমাকেও কুটুক্তি করতে ছাড়েনি: বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ নুসরাতের 

0

দাসপুর: নির্বাচনের ঘণ্টা ইতিমধ্যেই বেজে গেছে আর সেই মত প্রার্থীদের ভোট প্রচারও চলছে জোরকদমে। বাংলাকে দখলে আনতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। আর এই গেরুয়া শিবির যে বাংলার জন্য একেবারে সঠিক নয় তাই এদিন দাসপুরের মাটিতে শোনালেন তৃণমূল প্রার্থী নুসরাত জাহান তিনি বলেন “যে মুখ্যমন্ত্রীর আমলে নারীরা সবচেয়ে বেশি সুরক্ষিত সেই মহিলাকে তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী করবেন না আপনারা?” বক্তা নুসরাতের সামনে দর্শকের আসনে থাকা মহিলারা হাত তুলে উচ্ছসিত কণ্ঠে জানালেন ‘হ্যাঁ, চাই’। তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান বৃহস্পতিবার দাসপুরের ভূতা হাটতলা ময়দানে দাসপুরের তৃণমূল প্রার্থী মমতা ভুঁইয়ার সমর্থনে প্রচারে এসেছিলেন।

সেই প্রচার সভা থেকেই বসিরহাটের সাংসদ নুসরাত সকলকে আহ্বান জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে তৃতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন করতে। এদিনের বক্তৃতায় নুসরাত জোর দেন রাজ্যে নারী সুরক্ষার উপর।তিনি বলেন, “গত ১০ বছরে আমাদের রাজ্যে দিদির মুখ্যমন্ত্রীত্বে নারীরা সবচেয়ে বেশি সুরক্ষিত। যা বিজেপি শাসিত রাজ্যে কল্পনার বাইরে। বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে মহিলারা মোটেই সুরক্ষিত নয়। তার প্রমাণ আপনারা পেয়েছেন উত্তরপ্রদেশের হাথরসে।” এরপরই ‘কন্যাশ্রী’, ‘রূপশ্রী’, ‘সবুজসাথী’ এই সকল প্রকল্পের কথা তিনি তুলে ধরেন। আরও বলেন এই সাংসদ, “নারীদের জন্য এমন প্রকল্প দেশের অন্য কোনও রাজ্যে নেই। এর ফলে আমাদের রাজ্যে মেয়েদের কম বয়সে বিয়ের প্রবণতা অনেক কমেছে। বিজেপি নেতাদের মুখে নারী সুরক্ষার কথা মানায় না। ওরা মহিলাদের সম্মান দিতে জানে না। ওঁদের কথায় মোটেই বিশ্বাস করবেন না। ওরা মহিলাদের কটূক্তি করে। এমনকী আমাকেও বাদ দেয় না।”

এদিন বেলা সাড়ে ১২ টা নাগাদ দাসপুরের ফরিদপুর মাঠে নামে নুসরতের হেলিকপ্টার। তারপর এই অভিনেত্রী সাংসদ পায়ে হেঁটে ভূতা গ্রামে যান। সেখানকার ব্লক তৃণমূল যুব সভাপতি সৌমিত্র সিংহরায়ের বাড়িতে তিনি মধ্যাহ্নভোজ সারেন। ভূতা গ্রাম সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকা। এদিন অভিনেত্রীকে দেখতে প্রচুর ভিড় জমে যায় গ্রামে। মহিলাদের উপস্থিতি সেখানে ছিল দেখার মতো। নুসরাত মাত্র ১০ মিনিটের ভাষণে সকলের মন জয় করে নেন। এদিন নুসরাতের সাথে মঞ্চে ছিলেন তৃণমূল প্রার্থী মমতা ভুঁইয়া, তৃণমূল নেতা সুনীল ভৌমিক, অরুণ মুখোপাধ্যায়রা।