অবশেষে বিএসএফের গুলিতে মৃত বাংলাদেশী গরু পাচারকারীর দেহ পেল পরিবার

0

ত্রিপুরাঃ সীমান্তে রাতের অন্ধকারে কাঁটাতারের বেড়া টপকে চলছিল গরু পাচার। তা নজর এড়াইনি সীমান্তরক্ষা বাহিনীর। বারংবার সতর্ক করা সত্ত্বেও পিছু না হটায় গুলি চালাতে বাধ্য হন বিএসএফ জওয়ানরা। মৃত্যু হয় এক গরু পাচারকারীর।

বিএসএফ-এর ত্রিপুরা ফ্রন্টিয়ারের জনসংযোগ আধিকারিক জানিয়েছেন, শনিবার মধ্যরাতে কদমতলা থানাধীন ইয়াকুবনগরে ১৬৬ নম্বর বিএসএফ ক্যাম্পের অধীন ১৮২৩/২-এস নং পিলার এলাকা দিয়ে পাচারকারীরা গরু পাচারের চেষ্টা করছিল। সীমান্তে টহলদারি চলাকালীন জওয়ানরা দেখতে পান, ১০-১২ জন গরু পাচারকারী ভারতের দিক থেকে বাংলাদেশের দিকে যাচ্ছে এবং বাংলাদেশের দিক থেকেও ১০-১২ জন গরু পাচারকারী ভারতের দিকে আসছিল। তিনি বলেন, পাচারকারীদের মধ্যে কয়েকজন কাঁটাতারের বেড়া কেটে গরু বাংলাদেশে নেওয়ার চেষ্টা করছিল। জওয়ানরা বাধা দিতে গেলে তাঁদের দিকে পাথর ছুঁড়তে শুরু করে গরু পাচারকারীরা। আত্মরক্ষার্থে গুলি চালান জওয়ানরা। তাতেই এক গরু পাচারকারীর মৃত্যু হয়।

মৃত পাচারকারী বাংলাদেশের মৌলভিবাজার জেলায় জুড়ি থানাধীন পূর্ব বাটুলি গ্রামের বাসিন্দা বাপ্পা মিয়াঁ বলে শনাক্ত হয়েছে। মৃত ব্যক্তির দেহ ফেরত নেওয়ার জন্য একাধিকবার বিজিবি-র সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু দেহ ফেরত নিতে অস্বীকার করে বিজিবি। ফলে জটিলতা তৈরি হয়। তবে বাংলাদেশের লোকজন বিজিবি ছাউনি ঘেরাও করে দেহ ফেরত নেওয়ার দাবি জানান। এরপরই সোমবার বিকেলে দেহ ফেরত পায় মৃতের পরিবার। মৃতের বাবার হাতে দেহ তুলে দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here