রবীন্দ্র সঙ্গীতের পরিবর্তে রাজ্যে বোমার আওয়াজ বেশি শোনা যাচ্ছে: কোন যুক্তিতে এই কথা বললেন রাজনাথ সিং?

0

কলকাতা: ২১ এর নির্বাচনে বঙ্গ দখলে মরিয়া বিজেপি। পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের আগে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বৃহস্পতিবার জয়পুরে একটি সমাবেশে ভাষণ দেন। সেই সভা থেকেই তিনি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকে আক্রমণ করেন। সেই সঙ্গে করে বসেন এক বিতর্কিত মন্তব্য, তাও আবার বাঙালির আবেগ কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিয়ে। তিনি বলেন, “রবীন্দ্র সংগীতের পরিবর্তে রাজ্যে বোমার আওয়াজ বেশি শোনা যাচ্ছে এবং বোমা তৈরির কারখানা দেখা যাচ্ছে। এটি সেই একই দেশ যেখান থেকে স্বামী বিবেকানন্দের বার্তা প্রচার করা হয়েছিল।

মমতা দিদি এই বাংলাকে কোথায় নিয়ে গিয়েছে। আজ পুরো ভারত নতুন শতাব্দীতে বাস করছে কিন্তু আমাদের বাংলা আজ উনিশ শতকে বাস করছে।” নির্বাচনী লড়াইয়ে বিরোধী পক্ষকে কটাক্ষ করা অস্বাভাবিক কিন্তু রবীন্দ্র সঙ্গীত নিয়ে এই ধরণের উটকো মন্তব্যের পিছনে যুক্তি খুঁজে পাচ্ছেন না কেউই। বলা বাহুল্য, গত অক্টোবরে সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দাবি করেছিলেন যে, পশ্চিমবঙ্গের সব জেলায় বোমা তৈরির কারখানা রয়েছে। যদিও এই রকম কোনও নথি মেলেনি। ওই সভা থেকে রাজনাথ সিং আরও বলেন যে, “আজকাল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচনী প্রচারের সময় সহিংসতার কথা বলছেন। মমতা দিদি যখন প্রথম নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন, তখন তিনি মা, মাটি এবং মানুষের সুরক্ষার কথা বলেছিলেন। ১০ বছর কেটে গিয়েছে, বাংলায় না সুরক্ষিত না মাটি, না মানুষ।”

“মমতা দিদি বাংলায় আজব পরিস্থিতি তৈরি করেছে, তাঁর বক্তৃতাতেও হিংস্রতা রয়েছে। বাম সরকার ৩৬ বছর ধরে ক্ষমতায় ছিল এবং মমতা দিদির দশ বছরের সরকার থাকার কারণে এই সব ঘটছে। বিজেপিকে বিধানসভায় ২০০ আসন জিততে কেউ থামাতে পারবে না। আমি খুব নিশ্চিত যে পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচনে বিজেপি ২০০ টিরও বেশি আসন জিতবে। বাংলা সরকারের বুঝতে হবে যে গণতন্ত্রে সরকার সংবিধান দ্বারা পরিচালিত হয়, অহংকার দ্বারা নয়। আমি একজন বাঙালি শ্যামা প্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের গঠন করা দলের সাথেই অন্তর্ভুক্ত।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here