ভোটের আগের রাতেই কেশপুরে তৃণমূল কর্মীকে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ, গ্রেপ্তার ৭

0

কেশপুরঃ দ্বিতীয় দফার ভোট শুরুর আগে রক্ত ঝড়ল কেশপুরে । দাদপুরে তৃণমূল কর্মীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুন করা হয়েছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত বিজেপি। যদিও বিজেপির তরফে এই ঘটনা অস্বীকার করা হয়েছে। বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে তৃণমূল কর্মী উত্তম দলুইকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

কেশপুরের তৃণমূল কর্মী খুনে তড়িঘড়ি গ্রেফতার করা হয়েছে ৭ জনকে, জানালেন পুলিশ সুপার দিনেশ কুমার। যা নিয়ে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে কেশপুরে। তৃণমূলের অভিযোগের তীর গেরুয়া শিবিরের দিকে। যদিও অভিযোগ মেনে নেয়নি বিজেপি। কেশপুরের খুন প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, ‘গত তিন দিনে আমাদের তিন জন কর্মকর্তা খুন হয়েছে। খুন আমরা করিনা। খুনের রাজনীতি ওরা করে। বিজেপি করে না।’

উল্লেখ্য, প্রথম দফা নির্বাচনের আগেও রক্তাক্ত হয়েছিল কেশপুর। তখন এক বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনা সামনে উঠে এসেছিল।এদিন দ্বিতীয় দফা ভোটের দিনে সবচেয়ে হেভিওয়েট কেন্দ্র নন্দীগ্রামের সোনাচূড়ায় বোমাবাজি। ভয়ে ভোট দিতে যেতে পারছেন না স্থানীয় বাসিন্দারা।

কেশপুরের তৃণমূল প্রার্থী শিউলি সাহার অভিযোগ, এলাকায় মিঠুন চক্রবর্তী রোড শো-এর পর থেকে হামলা শুরু করেছে বিজেপি। স্থানীয় পুলিশ এবং কমিশনকে অভিযোগ জানিয়েও কোনও ফল পাওয়া যায়নি। তবে এই ঘটনায় সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন নির্বাচন কমিশন।ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোটা এলাকা থমথমে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, তাঁরা নিরাপত্তার অভাব অনুভব করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here