বিজেপি নেতার মা-স্ত্রীকে পেটানোর অভিযোগ, উত্তপ্ত বীজপুর

0

বীজপুর: ষষ্ঠ দফার ভোট শুরু হতেই বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর এসেছে বিভিন্ন বিধানসভা কেন্দ্র থেকে। কেতুগ্রামে ব্যাপক বোমাবাজির পর এ বার বীজপুরে আক্রান্ত বিজেপির মণ্ডল সভাপতি। দাসপাড়া অঞ্চলের মণ্ডল সভাপতি রাধাকান্ত রায়কে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ। স্ত্রী ও মা ছেলেকে বাঁচাতে গেলে রেহাই পাননি তাঁরাও। দুস্কৃতীরা ব্যাপক মারধর করেছে রাধাকন্তর ভাইকেও।

বিজেপির মণ্ডল সভাপতির ভাই ভোট দিয়ে বাড়ি ঢোকার পর তাঁকে এবং তাঁর বয়স্ক মাকে ব্যাপক মারধর করা হয় বলে জানা গিয়েছে। তাঁদের অভিযোগ দুরুমুশ দিয়ে মারা হয়েছে। ওই একই জায়গায় তৃণমূল কর্মী মাধবকেও ছুরির কোপ মারা হয়েছে বলে দাবি করেছে তৃণমূল। দুই ফুলের সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণ করতে ইতিমধ্যেই এলাকায় নেমে লাঠিচার্জ শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। তবে কে বা কারা এই কাজ করেছে এ বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। যদিও পদ্মশিবির ঘটনার জন্য কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে তৃমমূলকে।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্যরা জানান, মাথায় আঘাত তাঁরা দেখেছেন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে বলে জানিয়েছেন তিনি। কেন্দ্রীয় বাহিনী শান্তিপূর্ণ ভোটের জন্য পদক্ষেপ করছে বলে জানিয়েছেন তিনি। আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য গোটা এলাকা ফাঁকা করে দিয়েছে পুলিশ।

ষষ্ঠ দফায় উত্তর ২৪ পরগনার ১৭, উত্তর দিনাজপুরের ৯, নদিয়ার ৯, পূর্ব বর্ধমানের ৮ আসন মিলিয়ে মোট ৪৩ আসনে ভোট হচ্ছে। চোপড়া থেকে চাপড়া, বিভিন্ন কেন্দ্রে রয়েছেন হেভিওয়েট প্রার্থী। এই দফার ভোটে কয়েকটি বিশেষ কেন্দ্রে নজর থাকছে রাজনৈতিক মহলের। এগুলি হল নদিয়ার কৃষ্ণনগর উত্তর, উত্তর ২৪ পরগনার রায়গঞ্জ, উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুর, দমদম উত্তর ও হাবড়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here